kalerkantho

সোমবার। ৪ মাঘ ১৪২৭। ১৮ জানুয়ারি ২০২১। ৪ জমাদিউস সানি ১৪৪২

যুক্তরাষ্ট্রে নারীর মৃত্যুদণ্ড কার্যকর, সমালোচিত ট্রাম্প প্রশাসন

অনলাইন ডেস্ক   

১৪ জানুয়ারি, ২০২১ ১০:৩৪ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



যুক্তরাষ্ট্রে নারীর মৃত্যুদণ্ড কার্যকর, সমালোচিত ট্রাম্প প্রশাসন

যুক্তরাষ্ট্রে একজন নারীর মৃত্যুদণ্ড কার্যকর করা হয়েছে। লিসা মন্টগোমেরি নামের ওই নারী ২০০৭ সালে দোষী সাব্যস্ত হয়েছিলেন।  ১৯৫৩ সালের পর এই প্রথম কোনো নারীকে সে দেশে মৃত্যুদণ্ড দেওয়া হলো। জানা গেছে, ববি জো স্টিনেট নামে আট মাসের এক অন্তঃসত্ত্বাকে হত্যা করেছিলেন তিনি।

ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসি এক প্রতিবেদনে জানিয়েছে, মন্টগোমেরির আইনজীবীদের দাবি ছিল, তিনি মানসিকভাবে অসুস্থ। সে কারণে তাকে মৃত্যুদণ্ড না দেওয়া হোক।

তবে শেষ পর্যন্ত গত বুধবার স্থানীয় সময় রাত দেড়টায় বিষাক্ত ইনজেকশন দিয়ে মন্টগোমেরির মৃত্যু নিশ্চিত করা হয়।

মন্টগোমেরির আইনজীবী কেলি হেনরি এক বিবৃতিতে বলেছেন, এক ব্যর্থ প্রশাসনের মৃত্যুদণ্ড কার্যকরের প্রদর্শনী ছিল আজ রাতে। লিসা মন্টগোমেরির মৃত্যুদণ্ড কার্যকরের সঙ্গে জড়িত প্রত্যেকের  লজ্জা হওয়া উচিত।

তিনি আরো বলেন,  ক্ষতিগ্রস্ত ও বিভ্রান্ত একজন নারীকে হত্যা করার উদ্যোগ থেকে সরকার কিছুতেই সরে দাঁড়ায়নি। তার মৃত্যুদণ্ড দেওয়ার মতো অপরাধ ছিল না।

মামলার অভিযোগে বলা হয়েছে, ২০০৪ সালে লিসা মন্টগোমেরি  মিসৌরিতে ববি জো স্টিনেটের বাড়িতে যান। আট মাসের অন্তঃসত্ত্বা স্টিনেটের ঘরের ভেতরে প্রবেশের পর তাকে আক্রমণ করেন লিসা।

এরপর ছুরি দিয়ে স্টিনেটের তলপেট চিরে ফেলেন তিনি। পেট থেকে বাচ্চা বের করে নিয়ে গলা টিপে স্টিনেটকে হত্যা করেন।   আর সেই শিশুটিকে পরে নিজের সন্তান হিসেবে পরিচয় দেওয়ার চেষ্টা করেন লিসা।

এ ঘটনায় মন্টগোমেরিকে দোষী সাব্যস্ত করা হয়। তাকে মৃত্যুদণ্ড দেওয়ার রায় ঘোষণা করা হয়। কিন্তু তার আইনজীবীদের পক্ষ থেকে আদালতে যুক্তি দেওয়া হয়, শৈশবে সংঘবদ্ধ ধর্ষণসহ ‘যৌন নির্যাতনের’ শিকার হয়েছিলেন তিনি। 

সে কারণে তার মানসিক অবস্থা ভালো নয়। লিসার মানসিক স্বাস্থ্যের বিষয়টি বিবেচনায় নিয়ে মৃত্যুদণ্ড যেন না দেওয়া হয়।

সূত্র : বিবিসি।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা