kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ৭ মাঘ ১৪২৭। ২১ জানুয়ারি ২০২১। ৭ জমাদিউস সানি ১৪৪২

ইতালির ‘এনদ্রাঙ্গেতা' মাফিয়া গোষ্ঠীর সদস্যদের বিচার শুরু

অনলাইন ডেস্ক   

১৩ জানুয়ারি, ২০২১ ২০:১৫ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



ইতালির ‘এনদ্রাঙ্গেতা' মাফিয়া গোষ্ঠীর সদস্যদের বিচার শুরু

প্রতীকী ছবি।

ইতালির কালাব্রিয়ায় ‘এনদ্রাঙ্গেতা' মাফিয়া গোষ্ঠীর সাড়ে তিনশর বেশি সদস্যের বিচার শুরু হয়েছে। বুধবার শক্তিশালী এই মাফিয়া গোষ্ঠীর সদস্যদের বিচার শুরু হয়। বিচার কার্যক্রম এক বছরের বেশি সময় ধরে চলতে পারে বলে জানা গেছে আন্তর্জাতিক গণমাধ্যমের খবরে। ১৯৮৬-৮৭ সালে সিসিলির কোজা নোস্ত্রা গ্রুপের সদস্যদের বিচারের পর এটিই সবচেয়ে বড় মাফিয়া ট্রায়াল।

কোজা নোস্ত্রার বিচারের পর ওই গোষ্ঠী দুর্বল হয়ে যাওয়ায় এখন ইতালির সবচেয়ে শক্তিশালী মাফিয়া গোষ্ঠী হচ্ছে এনদ্রাঙ্গেতা। তাদের সদস্য ছাড়াও এনদ্রাঙ্গেতাকে সহায়তা করা রাজনীতিবিদ, সাবেক সাংসদ, ঊর্ধ্বতন পুলিশ কর্মকর্তা, মেয়র, আইনজীবী, সরকারি কর্মকর্তা, ব্য়বসায়ীসহ অন্যদেরও এই বিচারের আওতায় আনা হবে।

গত শতকের নব্বইয়ের দশকে ঘটা হত্যা, মাদকপাচার, চাঁদাবাজি, অর্থপাচারসব বিভিন্ন অপরাধ প্রমাণের চেষ্টা করবেন প্রসিকিউটররা। এনদ্রাঙ্গেতা মাফিয়া গোষ্ঠীর একটি অংশ ‘মানকুজো গ্যাং’র সদস্যরা এসব অপরাধের সঙ্গে জড়িত বলে অভিযোগ রয়েছে। তারা কালাব্রিয়ার ভিবো ভালেন্সিয়া এলাকায় সক্রিয়। ২০১৯ সালের ডিসেম্বরে অভিযান চালিয়ে এই গ্রুপের সদস্যদের আটক করা হয়। কর্তৃপক্ষের ধারণা, এনদ্রাঙ্গেতার সদস্য সংখ্যায় প্রায় ২০ হাজার এবং ইতালি ছাড়াও সারা বিশ্বে তাদের সদস্যরা সক্রিয় রয়েছে। কালাব্রিয়ার অন্যতম শীর্ষ প্রসিকিউটর নিকলা গ্রাটেয়ারির মতে, এনদ্রাঙ্গেতার বার্ষিক টার্নওভার ৬১ বিলিয়ন ডলারেরও বেশি, যার বেশিরভাগই আসে কোকেন পাচার থেকে। 

কোজা নোস্ত্রার বিরুদ্ধে চলা বিচারের মাধ্যমে ৩৩৮ জনকে দোষী সাব্যস্ত করা হয়েছিল। এর প্রতিশোধ হিসেবে ১৯৯২ সালে ওই মামলার দুই প্রসিকিউটর জিওভান্নি ফ্য়ালকন ও পাওলো বোর্সেলিনোকে হত্যা করা হয়েছিল। 

নিকলা গ্রাটেয়ারি ১৯৮৯ সাল থেকে এনদ্রাঙ্গেতার বিরুদ্ধে তদন্ত করছেন। তখন থেকে তিনি পুলিশি নিরাপত্তায় জীবনযাপন করছেন। ২০ বছরের বেশি সময় কোনো রেস্তোরাঁয় যাননি তিনি। সিনেমা হলে যান না ৩০ বছরেরও বেশি সময়। সবসময় নিজেকে বন্দি রাখেন। অফিসেই খাবার খান। তিনি বলেন, ‘আমার বাসা আসলে এক ধরনের বাঙ্কার। আমার নিরাপত্তা প্রহরীদের একটা ভালো টিম আছে।’

সূত্র: ডয়চে ভেলে।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা