kalerkantho

বুধবার । ১৮ ফাল্গুন ১৪২৭। ৩ মার্চ ২০২১। ১৮ রজব ১৪৪২

মেদিনীপুরে মমতার সভা আজ, শুভেন্দুর পরিবারের উপস্থিতি নিয়ে ধোঁয়াশা

অনলাইন ডেস্ক   

৭ ডিসেম্বর, ২০২০ ০৮:৪৭ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



মেদিনীপুরে মমতার সভা আজ, শুভেন্দুর পরিবারের উপস্থিতি নিয়ে ধোঁয়াশা

আজ সোমবার ভারতের পশ্চিমবঙ্গের  মেদিনীপুরে মমতা ব্যানার্জির রাজনৈতিক সভাকে কেন্দ্র করে তীব্র হচ্ছে কানাকানি। মমতা কী বার্তা দেন, সেদিকে রাজনৈতিক পর্যবেক্ষকদের নজর তো থাকবেই। 

সেই সঙ্গে সভায় কারা যাচ্ছেন, কে অনুপস্থিত- সেসবেরও চুলচেরা বিশ্লেষণ হতে চলেছে এই সভায়। আরও তীক্ষ্ণ নজর থাকবে শুভেন্দু অধিকারী পরিবারের ওপর। 

শুভেন্দু অধিকারী মন্ত্রী হিসেবে ইস্তফা দিলেও দল বা বিধায়ক পদ ছাড়়েননি। এমন সন্ধিক্ষণে দাঁড়িয়ে মমতা তাকে বা তার অনুগামীদের উদ্দেশ্য করে নতুন করে কিছু বলেন কি না, তা ঘিরেও তীব্র হচ্ছে গুঞ্জন। 

আবার আজকের এই সভার মঞ্চে বক্তার তালিকায় রয়েছেন ছত্রধর মাহাতো। তাই এই সভা রাজনৈতিক দিক থেকে অত্যন্ত তাৎপর্যপূর্ণ।

শিশির অধিকারীর পায়ে অস্ত্রোপচার হয়েছে। তাই তিনি মমতা ব্যানার্জির সভায় যাবেন না। রবিবার গভীর রাত পর্যন্ত খবর শোনা যায়, শুভেন্দু অধিকারী পরিবারের আরেক সাংসদ দিব্যেন্দুও মমতার সভায় থাকছেন না।

সোমবার তার দিল্লি যাওয়ার কথা। আর যাকে ঘিরে গত কয়েক মাস ধরে প্রায় প্রতি দিন নতুন নতুন জল্পনা তৈরি হচ্ছে, সেই শুভেন্দুর সোমবার থাকার কথা কলকাতায়। সুতরাং শেষ মুহূর্তে সিদ্ধান্ত বদল না হলে মমতার সভায় শুভেন্দু অধিকারী বাড়ির কারও থাকার সম্ভাবনা প্রায় নেই বললেই চলে। 

এদিকে  দুই মেদিনীপুর এবং ঝাড়গ্রাম জেলার সব বিধায়ক-সাংসদকে মেদিনীপুরের সভায় যেতে বলেছেন তৃণমূল নেত্রী মমতা ব্যানার্জি। পূর্ব মেদিনীপুরে তমলুক ও কাঁথি দুই কেন্দ্রেরই সাংসদ অধিকারী পরিবারের— শিশির এবং দিব্যেন্দু। 

জেলায় দলের বিধায়ক সংখ্যা ছিল ১২ জন। তার মধ্যে এগরার বিধায়ক সমরেশ দাশ মারা গেছেন। শুভেন্দু নিজেও বিধায়ক। বাকি ১০ জন বিধায়কের সবাই মমতার সভায় শেষ পর্যন্ত থাকেন কি না, সে দিকে নজর থাকবে। 

শিশির তৃণমূলের পূর্ব মেদিনীপুরের জেলা সভাপতি। দলনেত্রী তিন জেলার সভাপতিকেই সভায় থাকার কথা বলেছেন। সেই কারণে পশ্চিম মেদিনীপুরের জেলা সভাপতি শিশিরকে ফোন করেছিলেন। 

কিন্তু শিশির শারীরিক অসুস্থতার জন্য সভায় থাকতে পারবেন না বলে তাকে জানিয়ে দিয়েছেন। তবে শিশির আগেও বলেছেন, তিনি মমতার সঙ্গেই আছেন।

সূত্র: আনন্দবাজার

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা