kalerkantho

রবিবার । ১০ মাঘ ১৪২৭। ২৪ জানুয়ারি ২০২১। ১০ জমাদিউস সানি ১৪৪২

সিংহের দাম বিড়ালের এক-চতুর্থাংশ!

কালের কণ্ঠ ডেস্ক    

২৯ নভেম্বর, ২০২০ ০৩:২৩ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



সিংহের দাম বিড়ালের এক-চতুর্থাংশ!

প্রযুক্তিনির্ভর বিনোদন, খরচ বৃদ্ধির মতো নানা কারণে জাপানের চিড়িয়াখানাগুলোতে ভিড় কমছে। একসময়ের বনের রাজা খ্যাত সিংহের প্রতি মানুষের আকর্ষণ কমে গেছে। পরিস্থিতি এমন যে সেখানে বিড়ালের এক-চতুর্থাংশ দামে সিংহছানা কেনা সম্ভব।

জাপানে বন্য প্রাণীদের কঠোরভাবে নিয়ন্ত্রণ করা হয় এবং সাধারণ মানুষের পক্ষে সহজে সিংহ কেনা সম্ভব নয়। তবে জাপানের অ্যাসোসিয়েশন অব চিড়িয়াখানা ও অ্যাকোয়ারিয়াম বা যাজার প্রায় ৩০০ সদস্য আছে, যারা এসব প্রাণী বিক্রি করতে পারে। মেরুভল্লুক, জনপ্রিয় হাতি আর পান্ডা শাবকের মতো কিছু প্রজাতির চাহিদা সব সময়ই আছে, যেগুলো দর্শনার্থীদের সব সময়ই কাছে টানে। বন্য প্রাণীর ব্যবসাপ্রতিষ্ঠান রেপ জাপানের প্রতিষ্ঠাতা ও প্রাণী ব্যবসায়ী স্যুওশি শিরাওয়া বলেন, ‘জাপানে এখন সিংহ খুবই সস্তায় পাওয়া যায়। প্রতিটি চিড়িয়াখানা এবং বন্য প্রাণীর পার্কগুলোতে সিংহের চাহিদা আগে অনেক বেশি ছিল এবং সিংহকে সবচেয়ে বড় শিকারি হিসেবে দেখা হতো। এখন সিংহের জনপ্রিয়তা কমে গেছে। প্রাণীগুলো শিশু অবস্থায় সবার দৃষ্টি আকর্ষণ করলেও সমস্যা শুরু হয় বড় হলে।’ একটি সিংহের মূল্য এক লাখ ইয়েন অর্থাৎ ৮১২ ইউরো হতে পারে। তবে বিনা মূল্যে সিংহ দিয়ে দেওয়ার ঘটনাও রয়েছে বলে তিনি জানান।

অন্যদিকে পোষা প্রাণীর দোকানে একটি বিড়ালছানার মূল্য সিংহের চার গুণ অর্থাৎ চার লাখ ইয়েন বা তিন হাজার ২৪৮ ইউরো।

টোকিও ইউনিভার্সিটির পরিবেশবিষয়ক বিশেষজ্ঞ কেভিন শর্ট বলেন, ‘সিংহ লালন-পালন ব্যয়বহুল। সিংহের ক্ষুধা বেশি পায়। তা ছাড়া জাপানে মাংসের মূল্যও অনেক বেশি। সিংহের জন্য খাঁচার প্রয়োজন। সিংহশাবকরা দর্শকদের কাছে টানতে পারলেও প্রাপ্তবয়স্ক সিংহের প্রতি মানুষের আকর্ষণ অনেক কম।’ সূত্র : ডয়চে ভেলে।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা