kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ১৪ মাঘ ১৪২৭। ২৮ জানুয়ারি ২০২১। ১৪ জমাদিউস সানি ১৪৪২

জিব্লাল্টার এখন 'ভালবাসা কেন্দ্র'

অনলাইন ডেস্ক   

২৮ নভেম্বর, ২০২০ ১৭:৩৫ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



জিব্লাল্টার এখন 'ভালবাসা কেন্দ্র'

সারাবিশ্বে লকডাউন। এসবের মধ্যে অনেক কিছুই থেমে রয়েছে, আবার অনেক কিছুই থেমে নেই। লকডাউনের মধ্যে বিয়েটাও তেমনি। ব্রিটিশ শাসনাধীন জিব্লাল্টার অঞ্চল হয়ে উঠেছে বিয়ের জন্য এক অনন্য জায়গা। সারাবিশ্বে ভ্রমণ কড়াকড়ির মধ্যে এখন হবু দম্পতিরা পাড়ি জমাচ্ছেন জিব্লাল্টারে। কভিড-১৯ পরিস্থিতিতে জিব্লাল্টার হয়ে উঠেছে ভালবাসা কেন্দ্র। 

বিয়ের পরিকল্পনা করছিলেন, এমন জুটিরা লকডাউনে থমকে যান। কিন্তু তাদের কাছে জিব্লাল্টার হয়ে ওঠে নতুন জায়গা যেখানে গিয়ে তারা বিয়েটা সেরে নিতে পেরেছেন। সে কারণে এ অঞ্চলটি খ্যাতি পেয়েছে 'ভালবাসা কেন্দ্র' হিসেবে।  কিন্তু কেন জিব্লাল্টার এমন অভিসারের ক্ষেত্র হয়ে উঠল- এ প্রশ্নটি উঠছে সবার মনে। মূলত, কভিড-১৯ মহাারির সময় এখানে সীমান্ত কড়কড়ি তেমন ছিল না। আবার, এখানে বিয়ে করতে জুটিদের তেমন কিছু দেখাতেও হয় না। পাসপোর্ট, জন্মসনদ আর কিছু সহজলভ্য কাগজের মাধ্যমেই এখানে বিয়ে সেরে নেওয়া যাচ্ছে। ব্রুনো মিয়ানি ও নাতালিয়া সিনা ডি লিমা- দুজনের কেউ কল্পনায় করেননি তারা এখানে আসবেন। কিন্তু দুজনই বিয়ের জন্য খুব তাড়া অনুভব করছিলেন। সে কারণেই আয়ারল্যান্ডের ডাবলিন থেকে পাড়ি জমান জিব্লাল্টারে। 

ব্রিটিশ শাসনাধীন এ অঞ্চলের মুখ্যমন্ত্রী নতুন এ খ্যাতি নিয়ে বেশ খুশি। মুখ্যমন্ত্রী ফ্যাবিয়ান পিকার্ডো বলেন, আমি খুব উচ্ছ্বাসিত যে এ জায়গাটি কোনো বিভেদের জন্য পরিচিতি পায়নি বরং ভালোবাসার কেন্দ্র বলে খ্যাতি পেয়েছে। সূত্র: দ্য গার্ডিয়ান।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা