kalerkantho

সোমবার। ৪ মাঘ ১৪২৭। ১৮ জানুয়ারি ২০২১। ৪ জমাদিউস সানি ১৪৪২

মদ না পেয়ে হ্যান্ড স্যানিটাইজার পান, নিহত ৭

অনলাইন ডেস্ক   

২৭ নভেম্বর, ২০২০ ১২:৩৭ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



মদ না পেয়ে হ্যান্ড স্যানিটাইজার পান, নিহত ৭

করোনার জেরে এখন সবার বাড়িতে স্যানিটাইজার। হাত জীবাণুমুক্ত করতে সবাই এটি ব্যবহার করেন। স্যানিটাইজারে অ্যালকোহলের মাত্রা কতটা থাকে তা দেখেই এটি কেনা হয়। কিন্তু অ্যালকোহল মিশ্রিত স্যানিটাইজার কি খাওয়ার যোগ্য? বিশেষজ্ঞদের কথায়, একেবারেই নয়। স্যানিটাইজার খেলে মৃত্যু পর্যন্ত হতে পারে। এবার এমনটিই ঘটল রাশিয়ার একটি গ্রামে। মদের বদলে স্যানিটাইজার খেয়ে মৃত্যু হলো সাতজনের। কোমায় রয়েছেন আরো দুজন।

পূর্ব রাশিয়ার ইয়াকুতিয়া অঞ্চলের একটি গ্রামে এক বাড়িতে কয়েক দিন আগে একটি পার্টির আয়োজন করা হয়েছিল। যেখানে মদের বদলে পান করার জন্য স্যানিটাইজার আনা হয়। একটি লেবেল ছাড়া বোতলে রাখা হয়েছিল হ্যান্ড স্যানিটাইজার। পার্টি চলাকালীন সেটিকে মদ হিসেবে পান করে ওই ৯ জন। বিষক্রিয়ায় ঘটনাস্থলেই মৃত্যু হয় একজনের। বাকিদের দ্রুত হাসপাতালে নিয়ে গেলেও শেষরক্ষা হয়নি। হাসপাতালে মৃত্যু হয় আরো ছয়জনের। দুজনের অবস্থা আশঙ্কাজনক। রয়েছেন কোমায়। তাঁদের বাঁচানোর চেষ্টা চালাচ্ছেন চিকিৎসকরা। দেওয়া হয়েছে ভেন্টিলেশনেও। চিকিৎসকরা জানাচ্ছেন, এই দুজনকে বাঁচানোই এখন বড় চ্যালেঞ্জ।

এ বিষয়ে রাশিয়ার তদন্তকারী সংস্থার তরফে জানানো হয়েছে, নিকটবর্তী একটি দোকান থেকেই তারা পাঁচ লিটারের স্যানিটাইজারের বোতলটি কিনেছিলেন। যা ওই বাড়িতে পাওয়া যায় পরে। তাতে থাকা অ্যালকোহল পরীক্ষা করে দেখা যায়, এতে ৬৯ শতাংশ মিথানল রয়েছে। যা শরীরের জন্য অত্যন্ত ক্ষতিকর। মিথানল খেলে মৃত্যু অনিবার্য।

এই ঘটনার পর রবিবার রাশিয়ার বেশ কয়েকটি জায়গায় মিথানলযুক্ত স্যানিটাইজার বিক্রি বন্ধ করেছে প্রশাসন। পাশাপাশি ইয়াকুতিয়ায় এক সপ্তাহ কোনো রকম অ্যালকোহল বিক্রি নিষিদ্ধ করেছে সেখানকার প্রশাসন। এ বিষয়ে তদন্ত চলছে। কোথায় তৈরি হচ্ছে এ ধরনের স্যানিটাইজার, কারাই বা বিক্রি করছে- তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা