kalerkantho

বুধবার । ১৩ মাঘ ১৪২৭। ২৭ জানুয়ারি ২০২১। ১৩ জমাদিউস সানি ১৪৪২

সৌদিতে নেতানিয়াহুর গোপন সফর, যুবরাজের সঙ্গে সাক্ষাত

অনলাইন ডেস্ক   

২৩ নভেম্বর, ২০২০ ১৪:৪৭ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



সৌদিতে নেতানিয়াহুর গোপন সফর, যুবরাজের সঙ্গে সাক্ষাত

ইসরায়েলের প্রধানমন্ত্রী বেনয়ামিন নেতানিয়াহু গোপনে সৌদি আরব গিয়ে যুবরাজ মুহাম্মাদ বিন সালমান ও মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী পম্পেওর  সঙ্গে সাক্ষাত করেছেন বলে জানিয়েছে ইসরায়েলি সংবাদ মাধ্যম।

গতকাল রবিবার (২২ নভেম্বর) সৌদি আরবের ‍উপকূলীয় শহর নিওম এলাকায় পম্পেওর উপস্থিতিতে মুহাম্মদের সঙ্গে নেতানিয়াহু সাক্ষাত করেন বলে উল্লেখ করা হয়। খবর হারেতজর।

ইসরায়েলের শিক্ষামন্ত্রী ইয়াভ গ্যালান্ট দেশটির আর্মি রেডিও-কে বলেন, ইসরায়েলের প্রধানমন্ত্রী বেনয়ামিন নেতানিয়াহু সৌদি যুবরাজ মুহাম্মাদ এবং মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী পম্পেওর সঙ্গে সাক্ষাত করেছেন। এ সময় তাঁর সঙ্গে ছিলেন গোয়েন্দা সংস্থা মোসাদের প্রধান ইয়োসি কোহিন।

গতকালের বৈঠকটি ইসরায়েল ও সৌদি আরবের সর্বোচ্চ প্রতিনিধি দলের প্রথম সাক্ষাত হিসেবে মনে করা হচ্ছে। তাছাড়া সৌদি আরবে ইসরায়েলের প্রথম কোনো প্রধানমন্ত্রীর সফরও বটে। অবশ্য এ বিষয়ে এখনও সৌদি আরব, ইসরায়েলে ও যুক্তরাষ্ট্র সরকার আনুষ্ঠানিকভাবে কোনো কিছু জানায়নি। তবে যুবরাজের সঙ্গে নেতানিয়াহুর সাক্ষাত এবারই প্রথম নয়। বরং গোপনে প্রায়ই উভয়ের সাক্ষাত হয়ে থাকে বলে জানা যায়।

ইসরায়েলের বার্তা সংস্থা কেএএন-এর সূত্রে আল জাজিরা জানায়, ‘ইসরায়েলের প্রধানমন্ত্রী বেনয়ামিন নেতানিয়াহু গতকাল রবিবার গোপনে সৌদি আরব সফর করেন এবং সৌদি যুবরাজ ও মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী পম্পেওর সঙ্গে সাক্ষাত করেন।’

ইয়াদিয়াত সংবাদ মাধ্যমের সূত্রে আল জাজিরা নেট জানায়, ‘ইসরায়েলের প্রধানমন্ত্রী নেতানিয়াহুর বহির্বিশ্বের কাজে ব্যবহৃত একটি বিমান গতকাল বেনগুরিয়েন বিমানবন্দর থেকে সৌদি আরবের উপকূলীয় নিওম অঞ্চলের বিমান্দরে অবতরণ করে। এরপর সেখানে পাঁচ ঘণ্টা অবস্থান করে পুনরায় ইসরায়েল ফিরে আসে।’

খবরে আরো বলা হয়, মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী পম্পেওর সঙ্গে সৌদি পররাষ্ট্রমন্ত্রী ফয়সালের বৈঠককালে ইসরায়েল থেকে বিমানটি এসে পৌঁছে। ওয়ালা সংবাদ মাধ্যমে বলা হয়, গোপন সফরে নেতানিয়াহুর সঙ্গে ছিলেন মোসাদের প্রধান ইউসি কোহেন।

ইসরায়েলের সঙ্গে আমিরাত, বাহরাইন ও সুদান স্বাভাবিক সম্পর্ক চুক্তির পর সৌদি আরবের ভূয়সী প্রশংসা করেছেন যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। শিগগির সৌদি আরবও ইসরায়েলের সঙ্গে স্বাভাবিক সম্পর্ক গড়বে বলে আশা প্রকাশ করেন ট্রাম্প। কিন্তু সংবাদ মাধ্যমের খবর মতে সৌদি বাদশাহ সালমান সব সময় ইসরায়েলের বিরোধিতা করে আসছেন। 

জি টোয়েন্টি সম্মেলনকালে রয়টার্স-কে দেওয়া সাক্ষাতকারে সৌদি পররাষ্ট্রমন্ত্রী ফয়সাল বলেন, সৌদি আরব শর্তসাপেক্ষে ইসরায়েলের সঙ্গে স্বাভাবিক সম্পর্ককে দীর্ঘকাল সমর্থন করে আসছে। তবে স্বাভাবিক সম্পর্কের আগে অবশ্যই ফিলিস্তিন ও ইসরায়েলের মধ্যে স্থায়ী শান্তিপূর্ণ চুক্তি সম্পন্ন হতে হবে।’ 

সূত্র : হারেতজ ও আল জাজিরা

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা