kalerkantho

শনিবার । ৯ মাঘ ১৪২৭। ২৩ জানুয়ারি ২০২১। ৯ জমাদিউস সানি ১৪৪২

থাইল্যান্ডের রাজাকে বহিষ্কারের হুমকি দিয়েছে জার্মানি

অনলাইন ডেস্ক   

২২ নভেম্বর, ২০২০ ২১:২৫ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



থাইল্যান্ডের রাজাকে বহিষ্কারের হুমকি দিয়েছে জার্মানি

থাইল্যান্ডের সিংহাসনের বর্তমান রাজা মাহা ভাজরালংকর্নকে জার্মানি থেকে বহিষ্কারের হুমকি দেওয়া হয়েছে। আজ দেশটির সংসদের এক আলোচনায় জানানো হয়, যদি থাইল্যান্ডের ক্ষমতাসীন রাজা জার্মানিতে অবস্থান করে দেশে চলমান বিক্ষোভে দমন পীড়ন পরিচালনা করেন তবে তাকে বহিষ্কার করা হবে। এশিয়ার সাংবিধানিক রাজতন্ত্র শাসিত থাইল্যান্ডে বিগত কয়েক মাস ধরে রাজনৈতিক সংস্কারের দাবিতে বিক্ষোভ লক্ষ্য করা যাচ্ছে। এবার জার্মানি তার দেশে বসবাস করা থাই রাজার প্রতি এমন বার্তা প্রদান করা হলো।

জার্মানির আইনসভায় সমাজতান্ত্রিক বাম দলের পক্ষ থেকে এ বিষয়টি নিয়ে আলোচনার সূত্রপাত করা হয়। এর পরিপ্রেক্ষিতে দেশটির পররাষ্ট্রমন্ত্রী হাইকো মাস বলেন, আমাদের স্পষ্ট নীতি রয়েছে  এবং সে অনুযায়ী জার্মানিতে অবস্থান করে থাইল্যান্ডে বিক্ষোভকারীদের ওপর নিপীড়ন চালানো যাবে না। জার্মানির পক্ষ থেকে আরও জানিয়ে দেওয়া হয়েছে, থাই রাজা কিছু কূটনৈতিক মর্যাদা ভোগ করেন ঠিকই কিন্তু জার্মানি তাকে বহিষ্কার করার ক্ষমতা রাখে।

থাইল্যান্ডের বর্তমান রাজা জার্মানিতে বসবাস করে থাকেন। তিনি বর্তমানে মিউনিখের দক্ষিণে স্টানবার্গ লেকের বিলাসবহুল বাড়িতে থাকছেন। কভিড-১৯ লকডাউনে বিলাসবহুল হোটেলে জীবনযাপন করেছেন তিনি। তিনি জার্মানির বারাভিয়াতে বেশ আভিজাত্যের মধ্যে দিন কাটান বলে জানা গেছে। জার্মানির পক্ষ থেকে আরও জানানো হয়েছে, বারাভিয়ায় বসে থাইল্যান্ডে মানবাধিকার লঙ্ঘন করা হচ্ছে, এমন অভিযোগ রয়েছে। তবে এ জন্য থাই রাজাকে সত্যিকার অর্থেই আনুষ্ঠানিকভাবে বহিষ্কার করা হবে নাকি শুধু আলোচনাতেই এ ইস্যুটি সীমাবদ্ধ থাকবে- তা সময়ই বলে দিবে।
 
থাইল্যান্ডের সাবেক সামরিক জান্তা ও বর্তমান প্রধানমন্ত্রী প্রায়ুথ চ্যান ওচার পদত্যাগ, সেনা প্রভাবে প্রণীত সংবিধান বাতিল ও দেশটির রাজতন্ত্রের সংস্কারসহ বেশ কিছু দাবিতে বিক্ষোভ প্রদর্শন করে আসছে ছাত্রজনতা। এরই মধ্যে বিক্ষোভকারীদের ওপর কয়েক দফা হামলা, মামলা ও নিপীড়নের ঘটনা ঘটেছে এবং যা এখনও চলমান রয়েছে। সূত্র: ডয়চেভেল।

 

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা