kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ১১ অগ্রহায়ণ ১৪২৭। ২৬ নভেম্বর ২০২০। ১০ রবিউস সানি ১৪৪২

এরদোয়ানের বক্তব্যের পর যা বলল ফ্রান্সের ‘মুসলিম কাউন্সিল’

অনলাইন ডেস্ক   

২৬ অক্টোবর, ২০২০ ২১:৫১ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



এরদোয়ানের বক্তব্যের পর যা বলল ফ্রান্সের ‘মুসলিম কাউন্সিল’

তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রিসেপ তাইয়েপ এরদোয়ান (বাঁয়ে) ও ইমানুয়েল ম্যাক্রোঁ (ডানে)। ২০১৮ সালে প্যারিসের এলিসি প্রাসাদে এক যৌথ সংবাদসম্মেলনকালের ছবি।

ইসলাম ও হজরত মুহাম্মদকে (সা.) অবমাননার ইস্যুতে তুর্কিদের ফ্রান্সের পণ্য বয়কটের আহ্বান জানিয়েছেন তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রিসেপ তাইয়েপ এরদোয়ান। এ ছাড়াও ইসলামবিরোধী ইস্যুতে ইমানুয়েল ম্যাক্রোঁকে থামানোর জন্য ইউরোপীয় ইউনিয়নের নেতৃবৃন্দদের আহ্বান জানিয়েছেন ন্যাটো জোটের এই মিত্র দেশটির প্রধান। তার এমন আহ্বানের পরই বিবৃতি দিয়েছে ‘ফরাসি কাউন্সিল অব দ্য মুসলিম ফেইথ’।

ফরাসি মুসলিম কাউন্সিল বলছে, ফ্রান্সে মুসলমানরা ‘নিপীড়িত’ নয়। ফ্রান্স হলো অনেক বড় দেশ। সেখানে মুসলিম নাগরিকরা নিপীড়িত নয়। ফ্রান্সে মুসলিমরা মুক্তভাবে মসজিদ তৈরি করে এবং মুক্তভাবে ধর্ম পালন করে।

মহানবী হযরত মোহাম্মদ (সা.) কে একটি কার্টুন দেখিয়ে মত প্রকাশের অধিকারের ব্যাখ্যা দিয়েছিলেন প্যারিসের একটি স্কুলের শিক্ষক স্যামুয়েল প্যাটি। তাঁকে হত্যা করে ১৯ বছর বয়সী এক চেচেন। তারপরই ফ্রান্স জুড়ে প্রতিবাদ শুরু হয়। মাক্রোঁ তখন বলেছিলেন, ‘আমরা কার্টুন ছেড়ে দেব না।’ এর পরই তুরস্কের প্রেসিডেন্ট এরদোয়ান, পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান মন্তব্যের তীব্র সমালোচনা করেছেন। পশ্চিম ইউরোপের সংখ্যালঘু সংগঠনও বলেছে, মাক্রোঁ ইসলামোফোবিয়া বাড়াতে সাহায্য করছেন। 

এই ঘটনার পর থেকে অনেক আরব দেশেই ফরাসি জিনিস, বিশেষ করে মেক আপ সামগ্রী ও সুগন্ধী আর বিক্রি করা হচ্ছে না। শপিং মল বা দোকানের তাক খালি করে দেওয়া হয়েছে। এই তথ্য জানিয়েছে ডয়েচে ভেলে।

সূত্র: আল-আরাবিয়া, ডয়েচে ভেলে, ফ্রান্স২৪।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা