kalerkantho

মঙ্গলবার । ৪ কার্তিক ১৪২৭। ২০ অক্টোবর ২০২০। ২ রবিউল আউয়াল ১৪৪২

লাদাখে তীব্র ঠান্ডার মধ্যে চীনের সঙ্গে যুদ্ধের প্রস্তুতি নিচ্ছে ভারতীয় সেনা

অনলাইন ডেস্ক   

২৮ সেপ্টেম্বর, ২০২০ ০৯:২৫ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



লাদাখে তীব্র ঠান্ডার মধ্যে চীনের সঙ্গে যুদ্ধের প্রস্তুতি নিচ্ছে ভারতীয় সেনা

পূর্ব লাদাখে প্রকৃত নিয়ন্ত্রণ রেখায় তীব্র ঠান্ডার মধ্যে লড়াইয়ের প্রস্তুতি নিচ্ছে ভারতীয় সেনা। প্রায় ১৪ হাজার ৫০০ ফুট উচ্চতায় বিশ্বের উচ্চতম যুদ্ধক্ষেত্রে ট্যাংকসহ সমস্ত পদাতিক যুদ্ধযান নিয়ে প্রস্তুত সেনাবাহিনী। মাইনাস ৪০ ডিগ্রি তাপমাত্রায়ও যুদ্ধ করতে সমান পারদর্শী এমন যুদ্ধযান মোতায়েন করা হয়েছে। এরইমধ্যে শুরু হয়েছে মহড়া।

শীতের মৌসুমে মাইনাস ২০ থেকে ৩৫ ডিগ্রি সেলসিয়াস পর্যন্ত নেমে যায় পূর্ব লাদাখের তাপমাত্রা। প্রতি বছরই শীত আসার আগে তার জন্য প্রস্তুতি চলে সেনাবাহিনীতে। কিন্তু এ বার পরিস্থিতি সম্পূর্ণ আলাদা। মে মাস থেকে প্যাংগং লেক, গালওয়ান উপত্যকা-সহ প্রকৃত নিয়ন্ত্রণরেখায় আগ্রাসন শুরু করে চীনা বাহিনী। তার জেরে ১৫ জুন গালওয়ানে ঘটে যায় রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষ। দু’দেশের পররাষ্ট্রমন্ত্রী পর্যায়ের বৈঠকের পর পরিস্থিতি কিছুটা শান্ত হলেও যে কোনও সময় ফের পরিস্থিতি খারাাপ হতে  পারে। তাই এ বছর শীতের জন্য আলাদা করে প্রস্তুতি নিচ্ছে ভারতীয় সেনা।

চুমার ডেমচক এলাকায় টি-৯০ ও টি-৭২ ট্যাঙ্ক মোতায়েন করে মহড়া চালাচ্ছেন সেনা জওয়ানরা। এ ছাড়া রয়েছে বিএমপি-২ ইনফ্যান্ট্রি কমব্যাট ভেহিক্যালস। মাইনাস ৪০ ডিগ্রি সেলসিয়াস পর্যন্ত তাপমাত্রাতেও সমান দক্ষতায় যুদ্ধ করতে সক্ষম এই যুদ্ধযানগুলি। যে কোনও রকম চরমভাবাপন্ন অর্থাৎ তীব্র গরম বা ঠান্ডা, পাহাড়ি অথবা সমতল কিংবা জলে সমান পারদর্শী বাহিনীও থাকছে চীনের পিপলস লিবারেশন আর্মির মোকাবিলায়। মহড়ায় অংশ নিয়েছেন তারাও। 

পূর্ব লাদাখে ভারত-চীন প্রকৃত নিয়ন্ত্রণরেখায় যুদ্ধের পুরো প্রস্তুতির দায়িত্বভার রয়েছে ভারতীয় সেনার ‘ফায়ার অ্যান্ড ফিউরি কোর’-এর উপর। এই বাহিনীর তত্ত্বাবধানে থাকা মেজর জেনারেল অরবিন্দ কপুর বলেন, ‘‘শুধু ভারত নয়, সারা পৃথিবীতে একমাত্র ভারতীয় সেনার ‘ফায়ার অ্যান্ড ফিউরি কোর’ এই রকম চরম প্রতিকূল আবহাওয়ার মোকাবিলা করেও যুদ্ধ করতে সক্ষম। এই সব ট্যাঙ্ক, যুদ্ধযান ও অস্ত্রশস্ত্রগুলি রক্ষণাবেক্ষণ করা এখানে বিরাট চ্যালেঞ্জ। অস্ত্রশস্ত্র ও সেনা দুই তরফেই পর্যাপ্ত ব্যবস্থা রয়েছে।’’

সূত্র: আনন্দবাজার

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা