kalerkantho

মঙ্গলবার । ৪ কার্তিক ১৪২৭। ২০ অক্টোবর ২০২০। ২ রবিউল আউয়াল ১৪৪২

জাতিসংঘে ভারত

'৭০ বছরে সন্ত্রাসবাদ ছাড়া কিছুই অর্জন করেনি পাকিস্তান'

অনলাইন ডেস্ক   

২৬ সেপ্টেম্বর, ২০২০ ১৭:৩৯ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



'৭০ বছরে সন্ত্রাসবাদ ছাড়া কিছুই অর্জন করেনি পাকিস্তান'

জাতিসংঘে ভারতের স্থায়ী মিশনের ফার্স্ট সেক্রেটারি মিজিতো ভিনিতো, ফাইল ছবি।

জাতিসংঘের ৭৫তম সাধারণ সভায় পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের বক্তব্যের তীব্র প্রতিক্রিয়া জানিয়েছে ভারত। শুক্রবার জাতিসংঘে ভারতের স্থায়ী মিশনের ফার্স্ট সেক্রেটারি মিজিতো ভিনিতো বলেন, গত ৭০ বছরে বিশ্বের সামনে পাকিস্তানের 'গৌরব' তুলে ধরার মতো বিষয়গুলো হল সন্ত্রাসবাদ, জাতিগত নির্মূলিকরণ, মৌলবাদের বাড়বাড়ন্ত এবং গোপন পারমাণবিক বাণিজ্য।

শুক্রবার জাতিসংঘের সাধারণ সভায় ভিডিও বিবৃতিতে পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান কাশ্মীর প্রসঙ্গ তুলে ভারতের নিন্দা করেন। আগেই রেকর্ড করে রাখা সেই ভিডিওতে ইমরান খান ফের কাশ্মীর ইস্যুতে সরব হলে তখনই প্রতিবাদ জানিয়ে ভার্চুয়াল সভা থেকে ওয়াক আউট করে ভারত। এরপর ভারতের পক্ষ থেকে পাকিস্তানের বক্তব্যের তীব্র প্রতিক্রিয়া জানানো হয়।

ইমরান খানের বক্তব্যের প্রতিক্রিয়ায় ভারত স্পষ্ট ভাবে জানায় যে, জম্মু-কাশ্মীর ভারতের অবিচ্ছেদ্য অংশ। এই কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলে আইন ও প্রশাসনিক ইস্যু একান্তভাবেই ভারতের অভ্যন্তরীণ বিষয়। ভারতের আরো বলে, বর্তমানে কাশ্মীরের একমাত্র সমস্যা হল এর কিছুটা অংশ পাকিস্তান বেআইনি ভাবে দখল করে আছে।

মিজিতো ভিনিতো বলেন, '‌এই সভাকক্ষকে এমন এক ব্যক্তির ভুলভাল বক্তব্য শুনতে হল যার নিজের কিছুই প্রদর্শন করার মতো নেই, যার কোনো সাফল্য নেই যেটা নিয়ে কথা বলবেন এবং কোনো যুক্তিসঙ্গত পরামর্শ নেই যা বিশ্বের কাছে তুলে ধরবেন। তার বদলে আমরা দেখতে পাচ্ছ মিথ্যা, বিভ্রান্তিকর, ভুয়া তথ্য, যুদ্ধ-মনোভাবের মতো বিষয় ছড়িয়ে দেওয়ার চেষ্টা হচ্ছে এই সভাকক্ষে।'‌

পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রীর বক্তব্যের তীব্র নিন্দা করে ভিনিতো বলেন, '‌গত ৭০ বছরে এই দেশের বিশ্বকে বলার মতো গৌরব হল সন্ত্রাসবাদ, জাতিগত নিমূলীকরণ, মৌলবাদের বাড়বাড়ন্ত ও গোপনে পারমাণবিক বাণিজ্য।'

পাকিস্তানের বক্তব্যকে কটাক্ষ ভিনিতো আরো বলেন, 'এই দেশটিকে জাতিসংঘ বৃহত্তর সন্ত্রাসবাদীদের আশ্রয়স্থল হিসেবে চিহ্নিত করেছে। এই দেশেই সন্ত্রাসের মূল চক্রী লস্কর-ই-তৈয়্যেবার প্রতিষ্ঠাতা হাফিজ সাইদ ও জৈয়শ-ই-মুহম্মদের প্রধান মাসুদ আজহার বহাল তবিয়তে রয়েছে। ‌এটা সেই একই দেশ যারা রাষ্ট্রীয় তহবিলে ভয়ঙ্কর ও কালো তালিকাভুক্ত সন্ত্রাসবাদীদের জন্য পেনশনের ব্যবস্থা করেছে। আমরা আজ যে নেতার ভাষণ শুনলাম তিনি জুলাইতে পাকিস্তানের সংসদে ওসামা বিন লাদেনকে শহিদ হিসাবে উল্লেখ করেছিলেন।'

সূত্র : ইন্ডিয়া টাইমস।‌

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা