kalerkantho

সোমবার । ৩ কার্তিক ১৪২৭। ১৯ অক্টোবর ২০২০। ১ রবিউল আউয়াল ১৪৪২

ওয়াজিরিস্তানে পাকিস্তান সেনাবাহিনীর বিরুদ্ধে বড় বিক্ষোভ

অনলাইন ডেস্ক   

২৪ সেপ্টেম্বর, ২০২০ ১৬:২৪ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



ওয়াজিরিস্তানে পাকিস্তান সেনাবাহিনীর বিরুদ্ধে বড় বিক্ষোভ

ছবি: দক্ষিণ ওয়াজিরিস্তানে 'পশতুন ঐক্য মার্চ' বিক্ষোভের একাংশ।

পাকিস্তানের দক্ষিণ ওয়াজিরিস্তানের ওয়ানা এলাকায় পাকিস্তানি সেনাবাহিনীর বিরুদ্ধে বিক্ষোভ মিছিল অনুষ্ঠিত হয়েছে। 'পশতুন ঐক্য মার্চ' নামের এ বিক্ষোভে হাজার হাজার পশতুন অংশ নিয়েছে।

সন্ত্রাসবাদী গোষ্ঠীগুলোর পুনরায় উত্থানের নিন্দা ও নিখোঁজ ব্যক্তিদের সন্ধানের দাবি জানাতে ২০ মার্চ (রবিবার) এ বিক্ষোভ মিছিল অনুষ্ঠিত হয়। বিক্ষোভ থেকে নিখোঁজ ব্যক্তিদের আদালতে হাজির করার দাবি জানানো হয়।

ভারতীয় গণমাধ্যম ডেইলি হান্টের খবরে বলা হয়, ‘পশতুন লংমার্চ’ একটি প্রতিবাদ আন্দোলন। এর নেতৃত্বে রয়েছেন পশতুন তরুণরা।

মিছিলকারীরা তাঁদের এলাকায় সেনা প্রশ্রয়ে সন্ত্রাসী গ্রুপগুলো আবার তৎপর হওয়ার নিন্দা জানান। দীর্ঘদিন ধরে যেসব পশতুন নিখোঁজ, তাঁদের অবিলম্বে আদালতে হাজির করার দাবিতেও তাঁরা স্লোগান দিয়েছেন। পশতুন তরুণরা দীর্ঘদিন ধরে অভিযোগ করে আসছেন, নিরাপত্তা বাহিনী তাঁদের এলাকার লোকজনকে অপহরণ করছে, এলাকাছাড়া এবং ভীতির সঞ্চার করছে।

বিক্ষোভ মিছিলকে সফল দাবি করে এতে যাঁরা অংশ নিয়েছেন তাঁদের অভিনন্দন জানিয়েছে আয়োজক পশতুন তাহাফুজ মুভমেন্ট (পিটিএম)। ভুয়া এনকাউন্টার, জোর করে তুলে আনা, মারধর, অপহরণ ইত্যাদি যেসব অপরাধ মিলিটারি করে থাকে, সেগুলো জনসমক্ষে তুলে ধরার কাজের জন্য স্বনামখ্যাত সংগঠন পিটিএম।

সংগঠনের নেত্রী নার্গিস আফসিন খট্টক টুইটারে এক বার্তায় লেখেন, ‘সফল বিক্ষোভের জন্য অভিনন্দন! মুষ্টিবদ্ধ হাত উত্তোলনকারী সংগ্রামী জনগণকে লাল সালাম! প্রতিরোধ আন্দোলন দীর্ঘজীবী হোক।’

অপর একজন পশতুন নাগরিকের টুইট- ‘হাজার হাজার পশতুন রবিবার বিক্ষোভ মিছিল করল। মানবাধিকার লঙ্ঘনের বিরুদ্ধে আওয়াজ তুলল। বিচারবহির্ভূত হত্যাকাণ্ডের অবসানের দাবিতে মুখর হলো। এত বড় ঘটনা। কিন্তু পাকিস্তানি মিডিয়া একেবারে বোবা!’

ওয়াজিরিস্তান থেকে নির্বাচিত জাতীয় পরিষদ সদস্য মহসিন দাওয়ার টুইট করেন- ‘ধন্যবাদ তোমায় ওয়ানা।’ 'পশতুন লংমার্চ টু ওয়ানা।'

সূত্র : ডেইলি হান্ট।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা