kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ১৬ আশ্বিন ১৪২৭ । ১ অক্টোবর ২০২০। ১৩ সফর ১৪৪২

যে কারণে করোনা টিকার নাম 'স্পুটনিক-৫' রেখেছে রাশিয়া

অনলাইন ডেস্ক   

১২ আগস্ট, ২০২০ ১৪:৩৫ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



যে কারণে করোনা টিকার নাম 'স্পুটনিক-৫' রেখেছে রাশিয়া

বিশ্বের প্রথম দেশ হিসেবে করোনাভাইরাস ভ্যাকসিনের অনুমোদন দিয়েছে রাশিয়া। দেশটি কভিড-১৯ রোগের এই টিকার নাম রেখেছে ‘স্পুটনিক-৫’। তবে করোনা ভ্যাকসিনের নাম কেন 'স্পুটনিক-৫' রাখা হলো? এক প্রতিবেদনে বিষয়টি খোলাসা করেছে দেশটির বার্তা সংস্থা তাস।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, বিশ্বে প্রথম দেশ হিসেবে সাফল্যের ঘোষণা দেওয়া রাশিয়া তাদের ভ্যাকসিনটির নাম রেখেছে ‘স্পুটনিক-৫’। যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে প্রতিযোগিতায় ১৯৫৭ সালের ৪ অক্টোবরে সর্বপ্রথম মহাশূন্যে তারা যে স্যাটেলাইট প্রেরণ করে, তার নামও ছিল স্পুটনিক। মহাকাশযানের সেই সাফল্যের প্রতি সম্মান জানিয়ে রাশিয়ার আবিষ্কৃত করোনাভাইরাসের টিকার নাম রাখা হয়েছে।

বিশ্লেষকরা বলছেন, সোভিয়েত যুগকে যেন ভুলতে পারছে না রাশিয়া। সে সময় সোভিয়েত রাশিয়ার সঙ্গে আমেরিকার লড়াই ছিল মহাকাশ নিয়ে। আর এবারের লড়াইটা করোনাভাইরাসের টিকা উদ্ভাবন নিয়ে।

মঙ্গলবার রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন ভ্যাকসিনটির অনুমোদন দিয়ে বলেন, আমরাই প্রথম করোনার ভ্যাকসিন তৈরি করেছি। আমাদের তৈরি ভ্যাকসিনটি স্থায়ী বা টেকসই প্রতিরোধী সক্ষমতা দেখাতে সক্ষম। প্রয়োজনীয় সব ধাপ অতিক্রম করেই তা কার্যকর হিসেবে প্রমাণিত হয়েছে।

সফলতার কথা প্রকাশ হতেই বিশ্বের বিভিন্ন দেশ থেকে টিকার চাহিদা পেতে শুরু করেছে রাশিয়া। এরই মধ্যে ২০টি দেশ থেকে ১০০ কোটি ডোজ ভ্যাকসিনের অর্ডার পেয়েছে দেশটি।

তবে রাশিয়ার ভ্যাকসিনের কার্যকারিতা নিয়ে প্রশ্ন তুললেন বিজ্ঞানীরা। তারা বলছেন, ট্রায়ালের সম্পূর্ণ তথ্য ছাড়াই ভ্যাকসিনটির সুরক্ষা ও কার্যকারিতার ব্যাপারটি বিশ্বাস করা কঠিন।

উল্লেখ্য, মঙ্গলবার বিশ্বে প্রথম নতুন করোনাভাইরাসের জন্য প্রথম টিকা নিবন্ধন করেছে রাশিয়া। গামালিয়া রিসার্চ ইনস্টিটিউট ও রুশ প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় যৌথভাবে এই টিকার উন্নয়ন করেছে।

সূত্র : তাস।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা