kalerkantho

মঙ্গলবার । ১৪ আশ্বিন ১৪২৭ । ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২০। ১১ সফর ১৪৪২

প্রায় ৯ টন হাতির দাঁত ধ্বংস করছে সিঙ্গাপুর

অনলাইন ডেস্ক   

১১ আগস্ট, ২০২০ ১৮:১২ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



প্রায় ৯ টন হাতির দাঁত ধ্বংস করছে সিঙ্গাপুর

প্রায় ৯ টন হাতির দাঁত ধ্বংস করতে শুরু করেছে সিঙ্গাপুর। অবৈধ বাণিজ্য বন্ধে এমন সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে বলে জানিয়েছে দেশটি। মঙ্গলবার কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, সাম্প্রতিক বছরগুলোতে এটি বিশ্বের সবচেয়ে বড় হাতির দাঁত ধ্বংসের ঘটনা। বন্যপ্রাণীদের জীবন রক্ষা ও অবৈধ বাণিজ্যের বিরুদ্ধে দেশটির লড়াইয়ের অংশ এটি।

আফ্রিকা ও এশিয়ার মধ্যে নিষিদ্ধ প্রাণী সামগ্রীর চালানের এক ট্রানজিট পয়েন্ট হিসাবে কাজ করে সিঙ্গাপুর। গত বছর দেশটি রেকর্ড ৮ দশমিক ৮ টন হাতির দাঁত আটক করে। যার আনুমানিক মূল্য প্রায় ১৩ মিলিয়ন ইউএস ডলার। যে পরিমাণ হাতির দাঁত ধ্বংস করা হচ্ছে সেগুলো আনুমানিক ৩০০ আফ্রিকান হাতি থেকে এসেছে।

অনলাইনে প্রচারিত একটি ইভেন্টে দেখা গেছে, শ্রমিকেরা মাথায় হেলমেট পরে ট্রলি ও ভারী ট্রাকে একটি ক্রাশার দিয়ে হাতির দাত গুলো পিষ্ট করছে। সেখান থেকে অনবরত ক্রাশার চালানোর শব্দ আসছে।

দাঁতগুলো পুরো ধ্বংস করতে কয়েকদিন লেগে যেতে পারে। দাঁতগুলোকে টুকরো টুকরো করে আগুনে পুড়িয়ে দেওয়া হবে।

বুধবারের বিশ্ব হাতি দিবসের আগে অনুষ্ঠিত এই ক্রাশার প্রোগ্রামে দেশটির জাতীয় উদ্যান বোর্ড জানিয়েছে, 'হাতির দাঁত ধ্বংস করা ফলে এটি বাজারে পুনরায় প্রবেশ করা থেকে বিরত রাখবে এবং অবৈধভাবে হাতির দাঁত সরবরাহের যে আন্তর্জাতিক সাপ্লাই চেইন আছে সেটাকে ব্যাহত করবে।'

পরিবেশবিদরা অনুমান করেছেন যে, দাঁত, মাংস ও দেহের অন্যান্য অঙ্গের বাণিজ্যিক চাহিদার কারলে আফ্রিকার বিভিন্ন অঞ্চলে প্রতিদিন প্রায় ১০০ হাতি মানুষের হাতে মারা পড়ছে। বিশ্বে আর কেবল মাত্র ৪ লাখ হাতি অবশিষ্ট রয়েছে বলে মনে করা হয়। হাতির দাঁতের চাহিদার একটি বিরাট অংশ চীন ও ভিয়েতনামের মতো এশীয় দেশগুলো থেকে আসে, সেখানে এটি রত্ন এবং অলঙ্কারে পরিণত করা হয়।

সূত্র : গালফ টুডে।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা