kalerkantho

শুক্রবার । ১০ আশ্বিন ১৪২৭ । ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২০। ৭ সফর ১৪৪২

কলকাতায় এক দিনে করোনায় মারা গেলেন তিন চিকিৎসক

অনলাইন ডেস্ক   

১০ আগস্ট, ২০২০ ২৩:০৯ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



কলকাতায় এক দিনে করোনায় মারা গেলেন তিন চিকিৎসক

করোনাভাইরাস প্রতিরোধে বিশ্বজুড়েই চিকিৎসকদের প্রাণ যাচ্ছে। কলকাতায় আজ সোমবার এক দিনেই করোনায় আক্রান্ত হয়ে মারা গেলেন তিন চিকিৎসক। করোনাযোদ্ধাদের এই মৃত্যুতে চিকিৎসক মহলে শোকের ছায়া নেমে এসেছে।

ওয়েস্ট বেঙ্গল ডক্টর্স ফোরামের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, আজ সোমবার করোনায় মারা গেছেন ডক্টর প্রদীপ ভট্টাচার্য, ডক্টর বিশ্বজিৎ মণ্ডল এবং ডক্টর তপন সিনহার। এছাড়াও আজ হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন প্রখ্যাত চিকিৎসক হিমাদ্রি সেনগুপ্তও। তবে তিনি করোনায় আক্রান্ত ছিলেন না বলে জানা গেছে।

সূত্রের খবর, শ্যামনগরের বাসিন্দা, ভাটপাড়া অঞ্চলের ডাক্তার প্রদীপ ভট্টাচার্য (৫০) খুবই জনপ্রিয় ছিলেন এলাকায়। তিনি কোনো হাসপাতালের সঙ্গে যুক্ত ছিলেন না, ব্যক্তিগতভাবে রোগী দেখতেন। এলাকাবাসীর বিপদে-আপদে প্রায়ই পাশে পেয়েছেন তাঁকে। কয়েকদিন আগে করোনা উপসর্গ দেখা দেয় তাঁর। পরীক্ষায় রিপোর্ট পজিটিভ আসার পর তাঁকে মেডিকা হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

ডাক্তার প্রদীপ এলাকাবাসীর মধ্যে এতই জনপ্রিয় ছিলেন, যে তাঁর চিকিৎসার খরচ জোগানোর জন্য এলাকাবাসীরা চাঁদা দিয়ে টাকাও তুলেছিলেন। কিন্তু শেষ রক্ষা হলো না। আজ তিনি মারা গেছেন।

ব্যারাকপুরের আরেক চিকিৎসক, ডক্টর বিশ্বজিৎ মণ্ডলও আজ মারা গেলেন করোনায়। তিনি চক্ষু বিশেষজ্ঞ ছিলেন। কয়েকদিন আগে ফর্টিস হাসপাতালে ভর্তি করা হয় তাঁকে, করোনা সংক্রমণ নিয়ে। তবে চিকিৎসায় সাড়া দিচ্ছিলেন না তিনি। শেষে ভেন্টিলেটর সাপোর্ট দেওয়া হয় তাঁকে, তবু বাঁচানো যায়নি। আজ মারা গেলেন তিনিও।

কোঠারি হাসপাতালের সঙ্গে যুক্ত সিনিয়র শল্যচিকিৎসক তপন সিনহাও আজ হার মানলেন করোনাযুদ্ধে। ৬৩ বছর বয়সের এই কার্ডিওলজিস্ট চিকিৎসক অ্যাপোলো হাসপাতালে ভর্তি ছিলেন বেশ কিছুদিন ধরেই। অবশেষে আজ করোনায় প্রাণ কেড়ে নিল তাঁর।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা