kalerkantho

মঙ্গলবার । ১৪ আশ্বিন ১৪২৭ । ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২০। ১১ সফর ১৪৪২

সমুদ্রের নীচ দিয়ে ২৩১২ কিমি লম্বা কেবল লাইন উদ্বোধন করলেন মোদি

অনলাইন ডেস্ক   

১০ আগস্ট, ২০২০ ১৫:৪২ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



সমুদ্রের নীচ দিয়ে ২৩১২ কিমি লম্বা কেবল লাইন উদ্বোধন করলেন মোদি

সমুদ্রের নীচ দিয়ে চেন্নাই থেকে আন্দামানের পোর্ট ব্লেয়ার পর্যন্ত ২ হাজার ৩১২ কিলোমিটার লম্বা অপটিক্যাল ফাইবার কেবল লাইনের উদ্বোধন করেছেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। সোমবার তিনি এই বিশাল প্রকল্পের উদ্বোধন করেন। ভারতে এই প্রথম সমুদ্রের নীচ দিয়ে কেবল লাইন টানা হল।

এর ফলে আন্দামান ও নিকোবর দ্বীপপুঞ্জের টেলিকম পরিষেবা আগের চেয়ে অনেক উন্নত হবে। ভারতের মূল ভূখণ্ডের মতোই হাইস্পিড ব্রডব্যান্ড কানেকটিভিটি পাবেন সেখানকার মানুষ।

এদিন ওই কেবল লাইন চালু করে মোদি বলেন, 'পোর্ট ব্লেয়ার, লিটল আন্দামান ও স্বরাজ দ্বীপসহ আন্দামানের এক বিরাট অংশে পরিষেবা দেবে এই কেবল লাইন।'

পোর্ট ব্লেয়ার থেকে ওই কেবল লাইন গেছে স্বরাজ দ্বীপ (হ্যাভলক), লিটল আন্দামান, কার নিকোবর, কামরতা, গ্রেট নিকোবর, লং আইল্যান্ড এবং রঙ্গতে। মোদি বলেন, 'কোনো প্রকল্প যত বড় হয়, তাকে ততই চ্যালেঞ্জের মুখে পড়তে হয়। দেরি সত্ত্বেও এই প্রকল্প যে শেষ হয়েছে, সেজন্য আমি খুশি। আন্দামান দেশের গুরুত্বপূর্ণ অঞ্চলগুলোর মধ্যে অন্যতম। সেখানকার মানুষ কঠিন পরিশ্রমী। সেখানে উন্নত মানের টেলিকম পরিষেবা পৌঁছে দেওয়া আমাদের কর্তব্য।'

টেলিকম দপ্তরের এক কর্মকর্তা বলেন, 'আগামী দিনে আন্দামান-নিকোবরের মানুষ হাই স্পিড টেলিকম ও ব্রডব্যান্ড পরিষেবা পাবেন। এতে সাধারণ মানুষের যেমন সুবিধা হবে, তেমনই সুবিধা হবে প্রশাসনেরও।'

টেলিকম দপ্তরের বিবৃতিতে বলা হয়েছে, 'টেলিকম ও ব্রডব্যান্ড কানেকটিভিটির উন্নতি হলে দ্বীপপুঞ্জে পর্যটন ব্যবসা বাড়বে। আরো বেশি কর্মসংস্থান হবে। অর্থনীতির উন্নতি হবে। মানুষের জীবনযাত্রার মান বাড়বে। টেলিফোনের ভাল কানেকটিভিটি থাকলে বিজনেস প্রসেস আউটসোর্সিং,মাঝারি ও ছোট শিল্পের সুবিধা হবে।'

সমুদ্রের নীচ দিয়ে অপটিক্যাল ফাইবার কেবল পাতার জন্য অর্থ দিয়েছে যোগযোগ মন্ত্রণালয়ের অধীন ইউনিভার্সাল সার্ভিস অবলিগেশন ফান্ড। পুরো প্রকল্পে খরচ হয়েছে ১ হাজার ২২৪ কোটি টাকা। প্রকল্পটি বাস্তবায়ন করেছে ভারত সঞ্চার নিগম লিমিটেড। টেকনিক্যাল কনসালট্যান্ট হিসাবে কাজ করেছে টেলিকমিউনিকেশন্স কনসালট্যান্টস ইন্ডিয়া লিমিটেড।

সূত্র : দ্য ওয়াল।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা