kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ১৬ আশ্বিন ১৪২৭ । ১ অক্টোবর ২০২০। ১৩ সফর ১৪৪২

মার্কিন নিষেধাজ্ঞার মুখে হংকংয়ের প্রধান নির্বাহী ক্যারি লাম

অনলাইন ডেস্ক   

৮ আগস্ট, ২০২০ ১৮:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



মার্কিন নিষেধাজ্ঞার মুখে হংকংয়ের প্রধান নির্বাহী ক্যারি লাম

হংকংয়ের প্রধান নির্বাহী ক্যারি লাম।

চীনের বিরুদ্ধে বড় পদক্ষেপ গ্রহণ করল মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র। এবার হংকংয়ের 'চীনপন্থী' প্রধান নির্বাহী ক্যারি লামসহ ১১ জন উচ্চপদস্থ চীনা কর্মকর্তার ওপর ভ্রমণ ও আর্থিক বিষয় সংক্রান্ত নিষেধাজ্ঞা চাপাল ওয়াশিংটন। বিষয়টি আন্তর্জাতিক গণমাধ্যমে নিশ্চিত করেছেন দেশটির অর্থমন্ত্রী স্টিভেন মুচিন।

এক বিবৃতিতে অর্থমন্ত্রী স্টিভেন মুচিন বলেছেন, যুক্তরাষ্ট্র হংকংয়ের অধিবাসীদের স্বায়ত্তশাসনের অধিকার রক্ষায় তাদের সর্বশক্তি নিযুক্ত করবে। পাশাপাশি, প্রেসিডেন্টের নির্বাহী আদেশের মাধ্যমে নিষেধাজ্ঞাপ্রাপ্ত ১১ কর্মকর্তার যুক্তরাষ্ট্রে থাকা স্থাবর-অস্থাবর সম্পত্তি বাজেয়াপ্ত করা হবে। 

শুক্রবার নিষেধাজ্ঞা বলবত্‍ হওয়ার পর মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী মাইক পম্পেও বলেন, চীনের কমিউনিস্ট পার্টি ৫০ বছর আগে ব্রিটেন ও হংকংবাসীকে দেওয়া প্রতিশ্রুতি ভঙ্গ করেছে। তারা স্পষ্ট করে দিয়েছে যে হংকংয়ের স্বায়ত্তশাসনের অধিকার মানা হবে না। প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প এটা স্পষ্ট করে দিয়েছেন যে হংকংকে এক দেশ এক নীতি হিসেবেই দেখবেন এবং যারা হংকংবাসীর স্বাধীনতা কেড়ে নেওয়ার চেষ্টা করবে তাদের বিরুদ্ধে পদক্ষেপ গ্রহণ করা হবে। 

গত জুন মাসের ৩০ তারিখ আন্তর্জাতিক মঞ্চের প্রতিবাদ হেলায় উড়িয়ে হংকং নিয়ে বিতর্কিত জাতীয় নিরাপত্তা বিল পাস করে চীন। বিলটিতে সই করেন চীনা প্রেসিডেন্ট শি জিনপিং। এর ফলে স্বায়ত্বশাসিত প্রদেশটির ওপর বেজিংয়ের আধিপত্য আরো মজবুত হয়েছে। এই আইন মোতাবেক, নতুন দপ্তর খোলা হবে হংকংয়ে। আইন লঙ্ঘনকারীদের বিচারের জন্য হংকংয়ের প্রশাসক ক্যারি ল্যাম নতুন বিচারকও নিয়োগ করবেন খুব শিগগিরই। আগে নিয়ম ছিল হংকংয়ে কেউ কোনো অপরাধ করলে তার বিচার হংকংয়ের আইন মোতাবেক এখানেই হবে। তবে নয়া আইনে জাতীয় নিরাপত্তার অভিযোগে যে কোনো ব্যক্তিকে অভিযুক্ত করা হলে তাঁকে চীনা ভূখণ্ডে নিয়ে যাওয়া যাবে। 

বিশ্লেষকদের মতে, নয়া আইন কার্যকর হলে হংকংয়ের গণতন্ত্রকমীদের নিয়ন্ত্রণে আনতে চাইছে বেইজিং। এবার বেছে বেছে বিক্ষোভকারীদের ধরবে শি চিনপিং সরকার। পাশাপাশি ধীরে ধীরে হংকংয়ের বিশেষ মর্যাদাও বাতিল করবে চীন।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা