kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ৯ আশ্বিন ১৪২৭ । ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২০। ৬ সফর ১৪৪২

লেবাননকে চিকিৎসা ও মানবিক সহায়তার প্রস্তাব ইসরায়েলের

অনলাইন ডেস্ক   

৬ আগস্ট, ২০২০ ১৬:১৮ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



লেবাননকে চিকিৎসা ও মানবিক সহায়তার প্রস্তাব ইসরায়েলের

লেবাননের রাজধানী বৈরুতে ভয়াবহ বিস্ফোরণের পেছনে ইসরায়েলের হাত রয়েছে বলে অনেকে দাবি করেছেন। তবে সে অভিযোগ অস্বীকার করে ইসরায়েল লেবাননকে চিকিৎসা ও মানবিক সহায়তার প্রস্তাব দিয়েছে। যদিও ইসরায়েলের সহায়তা প্রস্তাবে এখনো সাঁড়া দেয়নি বৈরুত।

লেবাননকে সাহায্যের প্রস্তাব দিয়ে ইসরায়েলের প্রধানমন্ত্রী বেঞ্জামিন নেতানিয়াহু বলেছেন, আমি জাতীয় নিরাপত্তা কাউন্সিলকে এ বিষয়ে নির্দেশনা দিয়েছি। তারা জাতিসংঘের মধ্যপ্রাচ্য বিষয়ক দূত নিকোলায় ম্লাদেনোভের সঙ্গে যোগাযোগ করবে। তার সঙ্গে আলোচনা করলে বোঝা যাবে, আমরা লেবাননকে সাহায্য করতে পারছি কি না।'

ইসরায়েলের প্রতিরক্ষামন্ত্রী বেনি গান্তজ বলেন, আমরা আন্তর্জাতিক সংস্থাগুলোর মধ্যস্ততায় লেবাননকে মানবিক সাহায্য করতে চাই। যদি তা সম্ভব হয় তাহলে সেখানে মেডিক্যাল ও মানবিক সাহায্য পাঠানো হবে। সেইসঙ্গে জরুরি অন্যান্য সেবাও সরবরাহ করা হবে।

ইসরায়েলের বেশ কয়েকটি হাসপাতালের প্রধানরা লেবাননের কর্মকর্তাদের কাছে এবং জাতিসংঘের পক্ষ থেকে দেশটিকে জরুরি চিকিৎসা সহায়তা দেওয়ার প্রস্তাব দিয়েছেন। নাহারিয়ার গ্যালিলি মেডিক্যাল সেন্টারের মহাপরিচালক ডা. মাসাদ বারহৌম বলেছেন, 'শিশুরা,ছোট বাচ্চারা যন্ত্রণায় কাঁদছে, তাদের আহত হতে দেখে আমরা ব্যাথিত হই। তাদের চিকিৎসা এবং মানবিক সহায়তা প্রয়োজন। আমরা এটা দিতে প্রস্তুত।'

খ্রিস্টান আরব বারহৌম আরবী ভাষায় স্বাচ্ছন্দে কথা বলেন। বুধবার তিনি সোশ্যাল নেটওয়ার্ক এবং রেডিওতে সরাসরি তাদের আরবী ভাষায় লেবাননের রাষ্ট্রপতি এবং প্রধানমন্ত্রী, এমনকি হিজবুল্লাহ নেতা হাসান নাসরাল্লাহর কাছে আবেদন করেছিলেন যাতে তাকে সাহায্য করার অনুমতি দেয়।

বারহৌম বলেছেন, লেবাননের আহত নাগরিকদের জাতিসংঘের অন্তর্বর্তীকালীন বাহিনীর মাধ্যমে ইসরায়েলে স্থানান্তরিত করা যেতে পারে এবং পরে সেভাবেই তারা দেশে ফিরে যাবে।

উল্লেখ্য, মঙ্গলবার স্থানীয় সময় সন্ধ্যায় লেবাননের রাজধানী বৈরুতে ভয়াবহ বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটে। সর্বশেষ তথ্যানুযায়ী এই ঘটনায় অন্তত ১৫০ জনের প্রাণহানি হয়েছে। আহত হয়েছে প্রায় ৫ হাজার মানুষ। ধ্বংসস্তুপে আটকে পড়া মানুষের খোঁজে উদ্ধার অভিযান চলছে। অনেকেই চাপা পড়ে আছেন, ফলে মৃত্যুর সংখ্যা আরো বাড়বে।

বিস্ফোরণে প্রায় ৩ লাখ মানুষ বাস্তুচ্যুত হয়েছে বলে জানিয়েছেন শহরের গভর্নর মারওয়ান অবুউদ। ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে অসংখ্য ঘরবাড়ি।

সূত্র : জেরুজালেম পোস্ট।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা