kalerkantho

সোমবার । ২৬ শ্রাবণ ১৪২৭। ১০ আগস্ট ২০২০ । ১৯ জিলহজ ১৪৪১

করোনার প্রতিষেধক নিয়ে আশার বাণী শোনালেন মোদি

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১০ জুলাই, ২০২০ ১১:৩৪ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



করোনার প্রতিষেধক নিয়ে আশার বাণী শোনালেন মোদি

করোনার প্রতিষেধক নিয়ে আশার কথা জানিয়েছেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। তিনি বলেন, ভারতের ওষুধ শিল্প যে বিশ্বের সম্পদ তা মহামারীর সময় আবারো প্রমাণিত। এখনও কোভিড-১৯ এর প্রতিষেধক উৎপাদনের জন্য বিভিন্ন আন্তর্জাতিক প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে হাত মিলিয়ে কাজ করছে ভারতের বেশি কয়েকটি সংস্থা। মোদি বলেন আমি নিশ্চিত, করোনার প্রতিষেধক আবিষ্কার হওয়ার পরে তা তৈরি এবং বিপুল সংখ্যায় পৌঁছে দেওয়ার ক্ষেত্রে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করবে ভারত।

করোনার ওষুধের দাম নিয়ে মোদি বলেন, উন্নয়নশীল দেশের জন্য ওষুধের দামে নাগালের মধ্যে রাখার ক্ষেত্রে ভারতের ভূমিকা উল্লেখযোগ্য। সারা বিশ্বে শিশুদের জন্য যত প্রতিষেধক প্রয়োজন হয়, তার দুই-তৃতীয়াংশই তৈরি হয় ভারতে।

আগামী ১৫ আগস্টের মধ্যে বাজারে করোনাভাইরাসের টিকা আসবে কি না, তা নিয়ে আলোচনা এখন তুঙ্গে। এদিকে পরীক্ষার পর্যাপ্ত সময় হাতে না রেখে তড়িঘড়ি প্রতিষেধক বাজারে ছাড়ার যে লক্ষ্য নেওয়া হয়েছে, তার বিরোধীতা করেছেন চিকিৎসকদের একটি বড় অংশ।

গত ২ জুলাই আইসিএমআরের ডিজি বলরাম ভার্গব একটি চিঠিতে ১২টি গবেষণা কেন্দ্রকে জানিয়ে দেন,১৫ আগস্টের মধ্যে বাজারে আনতে হবে করোনার প্রতিষেধক। গবেষণার কাজে এ ভাবে দিনক্ষণ বেঁধে দেওয়ায় তীব্র সমালোচনার মুখে পড়ে আইসিএমআর। এর জবাবে আইসিএমআরের গবেষক নিবেদিতা গুপ্ত বলেন, আমরা দ্রুত টিকা আবিষ্কারের পক্ষে। দু’বছর পরে টিকা আবিষ্কার করে কোনও লাভ নেই। আমরা দৌড়ে যাতে পিছিয়ে না-পড়ি, তাই ওই চিঠিটি লেখা হয়েছে।

প্রতিষেধক আবিষ্কারের ক্ষেত্রে প্রথম দিকের পরীক্ষায় এরই মধ্যে সাফল্যের দাবি করেছে বিশ্বের বেশ কিছু সংস্থা। শেষমেশ সফল আবিষ্কার কতদিনের মধ্যে হবে তা নিয়েই সন্দিহান সবাই।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা