kalerkantho

শুক্রবার । ৩০ শ্রাবণ ১৪২৭। ১৪ আগস্ট ২০২০ । ২৩ জিলহজ ১৪৪১

চীনকে 'প্যাঁচে' ফেলতে অবশেষে হংকং বিষয়ে মুখ খুলল নয়াদিল্লি

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

২ জুলাই, ২০২০ ১০:৫৪ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



চীনকে 'প্যাঁচে' ফেলতে অবশেষে হংকং বিষয়ে মুখ খুলল নয়াদিল্লি

ফাইল ছবি, এপি

হংকং পরিস্থিতি নিয়ে এত দিন মুখ খোলেনি ভারত। এবার হংকংয়ের জন্য চীনের নয়া জাতীয় নিরাপত্তা আইনকে হাতিয়ার করে কূটনৈতিকভাবে বেইজিংকে 'প্যাঁচে' ফেলার পথে হাঁটল নয়াদিল্লি। খবর হিন্দুস্তান টাইমসের।

গতকাল বুধবার জেনেভায় জাতিসংঘের মানবাধিকার কাউন্সিলে ভারতের পক্ষ থেকে জানানো হয়, স্বশাসিত হংকংয়ে প্রচুর ভারতীয় বসবাস করেন। তাই হংকংয়ের সাম্প্রতিক পরিস্থিতির ওপর কড়া নজর রাখছে ভারত। জেনেভায় জাতিসংঘের ভারতের স্থায়ী প্রতিনিধি রাজীব কে চান্দের বলেন, এই নয়া বিষয় নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করে আমরা একাধিক বিবৃতি শুনেছি। আমাদের আশা, উপযুক্ত পক্ষ (চীন) এই মতামত বিবেচনা করবে এবং সঠিকভাবে, গুরুত্বের সঙ্গে ও নিরপেক্ষভাবে সেগুলোর সমাধান করবে।’ তবে জাতিসংঘেও চীনের নাম নেওয়ার পথে হাঁটেনি নয়াদিল্লি।

বিশ্বজুড়ে মানবাধিকার পরিস্থিতি নিয়ে আলোচনার সময় ভারতের এই মন্তব্যে একেবারেই অবাক নয় আন্তর্জাতিক মহল। বরং হংকং নিয়ে এত দিন নীরবতা বজায় রাখায় ভারতের সমালোচনায় মুখর হয়েছিলেন অনেক বিশেষজ্ঞ। কারণ এই চীনই জাতিসংঘে কাশ্মীর ইস্যু বারবার উত্থাপন করে ভারতের বিরুদ্ধে মানবাধিকার লঙ্ঘনের অভিযোগ তোলে।

সূত্রের খবর, আমেরিকা প্রবলভাবে চাইছিল, হংকং নিয়ে ভারতের তরফ থেকে মুখ খোলা হোক। কারণ নয়া জাতীয় নিরাপত্তা আইনের ফলে হংকংয়ের স্বাধীনতা দমিয়ে দেওয়া হবে এবং মানবাধিকার লঙ্ঘিত হবে। মঙ্গলবারই ২৭টি দেশ চীনকে নয়া জাতীয় নিরাপত্তা আইন পুনর্বিবেচনার দাবি জানিয়েছিল। মুক্ত এবং স্বাধীন হংকংয়ের পক্ষে প্রশ্ন তুলেছিল জাপানও। তারপর একমাত্র কোয়াড দেশ হিসেবে ভারতের তরফ থেকে কোনো মন্তব্য করা হয়নি। কিন্তু গালওয়ান উপত্যকায় চীন-ভারত সংঘাতের পর ৫৯টি অ্যাপ বন্ধের জন্য আমেরিকা ভারতকে বাহবা দেওয়া মাত্রই হংকং নিয়ে মুখ খুলে চীনের ওপর কূটনৈতিক চাপ বাড়ানোর পথে হাঁটল নয়াদিল্লি। একই সঙ্গে খুশি হলো আমেরিকাও। যা চীনের সঙ্গে সীমান্ত বিবাদে ভারতের অবস্থান মজবুত করবে বলে মত কূটনৈতিক মহলের।

সূত্র : হিন্দুস্তান টাইমস 

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা