kalerkantho

সোমবার । ২৯ আষাঢ় ১৪২৭। ১৩ জুলাই ২০২০। ২১ জিলকদ ১৪৪১

মেক্সিকোতে পাঁচশ 'ডেথ সার্টিফিকেটে' করোনার উল্লেখ নেই, জানা গেল তদন্তে

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

৬ জুন, ২০২০ ০৯:৩৮ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



মেক্সিকোতে পাঁচশ 'ডেথ সার্টিফিকেটে' করোনার উল্লেখ নেই, জানা গেল তদন্তে

মেক্সিকোর বেসরকারি হাসপাতালের অন্তত ১০ জন চিকিৎসক এবং সরকারি একজন কর্মকর্তা মিলে পাঁচ শতাধিক মরদেহের ভুয়া শংসাপত্র দিয়েছেন। মেক্সিকো সিটি প্রসিকিউটর অফিস থেকে তদন্তে এসব তথ্য জানা গেছে।

ডেইলি মেইলের এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, মৃত্যুর শংসাপত্র নিয়ে মেক্সিকো সিটি হেলথ প্রটেকশন অথরিটি উদ্বেগ প্রকাশের পর এ নিয়ে তদন্ত শুরু হয়। তাতেই এসব তথ্য বেরিয়ে আসে।

পাঁচ শতাধিক মানুষের মৃত্যুর কারণ হিসেবে উল্লেখ করা হচ্ছিল, শ্বাসযন্ত্রের সমস্যা, নিউমোনিয়া বা ভাইরাল নিউমোনিয়া। তবে আশঙ্কা করা হচ্ছিল, করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে তারা মারা গেছেন। সেই পূর্বানুমান নিয়েই তদন্ত শুরু হয়। 

মেক্সিকো সিটি মেয়র ক্লদিয়া শেইনবাম বলেছেন, সারাবিশ্বে করোনাভাইরাস মহামারি আকারে ছড়িয়ে যাওয়ার পরেও ওই চিকিৎসকরা মৃত্যুর কারণ হিসেবে প্রাথমিকভাবেও করোনার ব্যাপারে উল্লেখ করেননি।

এছাড়া ওই চিকিৎসকরা মৃত্যুর ব্যাপারে ভুয়া শংসাপত্র দেওয়ার ব্যাপারেও চলতি বছরের জানুয়ারিতে একটি স্ক্যান্ডালে নাম জড়িয়েছিলেন। তবে তারা ঠিক কী কারণে এ ধরনের শংসাপত্র দিয়েছেন, তা এখনো প্রকাশ করা হয়নি।

জানা গেছে, রোগীরা মারা যাওয়ার পর সেখানে আর কোনো চিকিৎসক না যাওয়া দেখে সন্দেহ হয় মেক্সিকো সিটির হেলথ প্রটেকশন অথরিটির। তারপরই এ নিয়ে তদন্ত শুরু হয়। ১০ জন চিকিৎসকের মধ্যে তিনজনের নাম প্রকাশ করা হয়েছে।

সরকারি কর্মকর্তারা মনে করছেন, ভুয়াভাবে শংসাপত্র দেওয়ার কারণে মেক্সিকোতে করোনাভাইরাস আরো ব্যাপকহারে ছড়িয়ে যেতে পারে।

সূত্র :  ডেইলি মেইল

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা