kalerkantho

শনিবার । ২০ আষাঢ় ১৪২৭। ৪ জুলাই ২০২০। ১২ জিলকদ  ১৪৪১

তেলে ভাসছে রাশিয়ার নদী, জরুরি অবস্থা ঘোষণা

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

৪ জুন, ২০২০ ১২:৫০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



তেলে ভাসছে রাশিয়ার নদী, জরুরি অবস্থা ঘোষণা

জ্বালানি তেলের ট্যাংক ফেটে রাশিয়ার সুমেরু অঞ্চলে ছড়িয়ে পড়েছে ২০ হাজার টন তেল। এতে ওই অঞ্চলের নরিলিক্স শহরে জরুরি অবস্থা ঘোষণা করেছেন রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন। গত শুক্রবার এ ঘটনাটি ঘটলেও রাশিয়ার কর্মকর্তারা জানতে পেরেছেন দুইদিন পরে। এতে কর্মকর্তাদের ওপর ক্ষোভ জাড়লেন পুতিন। ঘটনা দ্রুত তদন্তের নির্দেশ দিয়েছেন তিনি।

জানা যায়, নরিলিক্সের কাছে একটি বিদ্যুৎ কেন্দ্রের জ্বালানি ট্যাংক ধসে পড়ার পর নদীতে তেল ছড়ানো শুরু হয়। ২০ হাজার টন তেল দুর্ঘটনাস্থল থেকেও প্রায় ১২ কিলোমিটার দূর পর্যন্ত ছড়িয়ে পড়ায় আমবারনায়া নদীর বিশাল অংশ লালচে আভা ধারণ করে। যে বিদ্যুৎ কেন্দ্রের জ্বালানি ট্যাংক ধসে পড়েছে, সেটি বিশ্বের শীর্ষস্থানীয় নিকেল ও পালাডিয়াম উৎপাদনকারী কম্পানি নরিলিক্স নিকেলের সহযোগী একটি প্রতিষ্ঠানের মালিকানাধীন।  কম্পানি জানায়, বিদ্যুৎ কেন্দ্রের জ্বালানি ট্যাংক সংলগ্ন পিলারগুলো ডুবে যেতে শুরু করলে ভারসাম্য হারিয়ে ট্যাংকটি ধসে পড়ে। 

ওপর থেকে তোলা কিছু ভিডিও এবং ছবিতে দেখা গেছে আমবারনায়া এবং দাদিকান নদীর বিশাল অংশ লাল হয়ে গেছে। দূষণ এতটাই বেশি যে গুগল ম্যাপে এবং ইয়ান্ডেক্স ম্যাপের স্যাটেলাইট ইমেজেও তা স্পষ্ট বোঝা যাচ্ছে। পরিবেশবিদরা সতর্ক করছেন, ওই অঞ্চলে দীর্ঘমেয়াদি ক্ষতি হতে পারে।

প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন বুধবার জরুরি অবস্থা ঘোষণার পাশাপাশি দ্রুত পদক্ষেপ না নেওয়ার জন্য স্থানীয় প্রশাসনের তীব্র সমালোচনা করেছেন। জরুরি অবস্থা জারির অর্থ হচ্ছে পড়ে যাওয়া ডিজেল পরিষ্কারে বাড়তি গুরুত্ব দেয়া হবে। তবে নরিলিক্স নিকেলের কোনো স্থাপনা থেকে নদীতে তেল ছিটকে পড়ার ঘটনা এটিই প্রথম নয়। ২০১৬ সালেও কম্পানিটির প্ল্যান্টে ঘটা এক দুর্ঘটনার পর ছড়িয়ে পড়া রাসায়নিকে কাছাকাছি এলাকার একটি নদী লাল রং ধারণ করেছিল।

সূত্র: বিবিসি

 

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা