kalerkantho

শুক্রবার । ১৯ আষাঢ় ১৪২৭। ৩ জুলাই ২০২০। ১১ জিলকদ  ১৪৪১

ইসরায়েলে ধর্মীয় প্রাচীন স্থাপনায় মিলল গাঁজা

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

২৯ মে, ২০২০ ১১:১৭ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



ইসরায়েলে ধর্মীয় প্রাচীন স্থাপনায় মিলল গাঁজা

১৯৬৩ সালের ঘটনা। ইসরায়েলের মৃত সমুদ্রের (ডেড সি) পশ্চিমে অবস্থিত তেল আরাদের প্রত্নতাত্ত্বিক এলাকা বারসেবা ভ্যালির অত্যন্ত পবিত্র জায়গা আলাদ পেলইন মন্দিরে চুনাপাথরের দু’টি বেদী পাওয়া যায়।

বারসেবা ভ্যালির নিচ দিকে ছোট শহর ও উপরের দিকে পাহাড় রয়েছে। সেখানকার একটি মন্দিরে হিব্রুতে ঈশ্বরের নাম লেখা আছে, যা বাইবেলেও উল্লেখ আছে।

সেখানে পাওয়া চুনাপাথরের দুই বেদী বর্তমানে ইসরায়েলের যাদুঘরে রয়েছে। গবেষকরা বলছেন, ওই বেদী দুই ধরনের উপকরণ পাওয়া গেছে। তার মধ্যে একটি হলো গাঁজার গাছ।

গবেষকরা বলছেন, এই প্রথম এই অঞ্চলে প্রাচীন গাঁজার উপস্থিতির প্রমাণ মিলল। জেরুসালেমে অবস্থিত ইসরায়েল মিউজিয়ামের কিউরেটর ইরান আরিয়ে বলেন, সারাবিশ্বের মানুষ, বিশেষ করে করে প্রাচ্যের মানুষজন জানে যে, পরমাত্মার সান্নিধ্য লাভের আশায় বিভিন্ন সংস্কৃতিতে ভাবাবেগকে অন্যমাত্রায় নিয়ে যাওয়ার জন্য বিভিন্ন ধরনের মাদকের ব্যবহার হতো।

তিনি আরো বলেন, ইহুদিরা এ ধরনের চর্চা করেছে বলে আগে ধারণাই ছিল না। ইহুদিদের প্রাচীন একটি স্থাপনায় আমরা গাঁজা পেয়েছি। যা ইহুদি সম্প্রদায় সম্পর্কে নতুন কিছু বলে। পরবর্তী সময়ে জেরুসালেমে গাঁজার ব্যবহার হয়েছে বলেও আন্দাজ করেন তিনি।

তিনি আরো বলেন, এর আগে বিভিন্ন গবেষণায় দেখা গেছে অন্যান্য সংস্কৃতির মধ্যে বিশেষ করে পাহাড়ে, আফ্রিকার বুগান্ডা এলাকায়, ব্রাজিলের টেনেটেহারা বিভিন্ন ধর্মীয় উৎসবে গাঁজা ব্যবহার করেছে।

সূত্র : ইস্ট বে টাইমস

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা