kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ২৫ আষাঢ় ১৪২৭। ৯ জুলাই ২০২০। ১৭ জিলকদ ১৪৪১

৮ দেশে মৃত্যু ১০ শতাংশের ওপর, সামাজিক দূরত্ব না মানার কারণেই?

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

২৪ মে, ২০২০ ১৪:১৬ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



৮ দেশে মৃত্যু ১০ শতাংশের ওপর, সামাজিক দূরত্ব না মানার কারণেই?

করোনায় বিশ্বজুড়ে বাড়ছে মৃত্যুর মিছিল। তারপরও অর্থনীতি বাঁচাতে অনেক দেশ লকডাউন শিথিল করছে। তাতে সংক্রমণ ও মৃত্যুর হার আরো বেড়ে যাওয়ার আশঙ্কা করছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (ডব্লিউএইচও)। সংস্থার হিসাবে বিশ্বজুড়ে করোনায় মৃত্যুর হার ৬.৭ শতাংশ। মধ্যএপ্রিল থেকে এটি ৭ শতাংশে ঘুরপাক খাচ্ছে। কিন্তু ৮ দেশে মৃত্যুর এ হার অস্বাভাবিক বেশি।

এ আট দেশের মধ্যে বেলজিয়ামে মৃত্যুর হার ১৬.৩ শতাংশ, যুক্তরাজ্যে ১৫.৫ শতাংশ, ফ্রান্সে ১৫.১ শতাংশ, ইতালিতে ১৪.৩ শতাংশ, নেদারল্যান্ডে ১২.৯ শতাংশ, স্পেনে ১২ শতাংশ, সুইডেনে ১২ শতাংশ এবং মেক্সিকোতে ১০.৮ শতাংশ।

এ আট দেশে মৃত্যুর হার বেশি হওয়ার কারণ মনেকরা হচ্ছে, যেমন- সুইডেনে লকডাউন বাধ্যতামুলক করা হয়না। নাগরিকদের স্বেচ্চায় সামাজিক দূরত্ব মানার কথা বলা হচ্ছে। ফলে তারা তা ঠিকভাবে মানছে না। বিশেষজ্ঞরা বলছেন, এ কারণে ভাইরাস বৃদ্ধদের কাছে পৌঁছে এবং তারা আক্রান্ত হয়ে মারা যাচ্ছে। এছাড়া পরীক্ষার ব্যবস্থা পর্যাপ্ত না থাকাও মৃত্যুর অন্যতম কারণ। যেমন সুইডেনে শুধু যাদের উপসর্গ দেখা যায় তাদেরই পরীক্ষা করা হয়। অথচ সিঙ্গাপুরে করোনা ব্যাপকভাবে পরীক্ষা-নিরীক্ষা করা হচ্ছে। সেখানে মৃত্যুর হার ০.১ শতাংশ।

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা বলছে, সামাজিক দূরত্ব মেনে চললে করোনা ঠেকানো সম্ভব হবে। যুক্তরাষ্ট্রের কলম্বিয়া ইউনিভার্সিটির এক গবেষণা প্রতিবেদনে বলা হয়, যদি দেশটিতে সামাজিক দূরত্ব এক সপ্তাহ আগে বাস্তবায়ন করা যেতো তাহলে ৩৬ হাজার মানুষের মৃত্যু ঠেকানো যেতো।

সূত্র: বিজনেস ইনসাইডার

 

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা