kalerkantho

শুক্রবার । ১৫ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭ । ২৯  মে ২০২০। ৫ শাওয়াল ১৪৪১

করোনার দুর্বলতার খোঁজ পেলেন বিজ্ঞানীরা, ভ্যাকসিন আসবে দ্রুত?

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

৫ এপ্রিল, ২০২০ ১৫:২৭ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



করোনার দুর্বলতার খোঁজ পেলেন বিজ্ঞানীরা, ভ্যাকসিন আসবে দ্রুত?

ছবি: অ্যান্টিবডি।

করোনায় কাঁপছে সারা বিশ্ব। তবে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার সদর কার্যালয়ে খানিকটা স্বস্তির নিঃশ্বাস পড়ল। ৬৪ হাজার মৃতদেহের প্রাচীর পেরিয়ে অবশেষে সাফল্যের আরো এক ধাপ। করোনাভাইরাসের দুর্বলতার খোঁজ পেলেন বিজ্ঞানীরা। এর ফলে মারণ ভাইরাসটিকে আঘাত করে তাকে নিশ্চিহ্ন করার একটি সূত্র মিলেছে। যুক্তরাষ্ট্রের সান দিয়েগো ট্রিবিউন তাদের এক প্রতিবেদনে এ তথ্য প্রকাশ করেছে।

ভাইরাস বিশেষজ্ঞরা জানাচ্ছেন, কোভিড-১৯ এর পূর্বসূরী সার্স। সেই মারণ ভাইরাসের মোকাবেলায় সংগ্রহ করা একটি অ্যান্টিবডি থেকে করোনাভাইরাসের দুর্বলতার খোঁজ মিলেছে। ওই দুর্বল অংশটিকে তারা বলছেন ‘অ্যাকিলিস হিল’।

অলাভজনক আমেরিকান চিকিৎসা গবেষণা প্রতিষ্ঠান স্ক্রিপস রিসার্চ ইনস্টিটিউটের করোনাভাইরাসবিষয়ক গবেষকেরা বলছেন, করোনাভাইরাসের ওই অ্যাকিলিস হিল খুঁজে পাওয়ার ঘটনা চিকিৎসাক্ষেত্রে খুব ভালো খবর হয়ে আসতে পারে। এ থেকে করোনাভাইরাসের নতুন ভ্যাকসিন তৈরির পথ খুলে যেতে পারে।

গবেষকরা বলছেন, ২০০০ সালের শুরুতে সার্স মহামারি থেকে বেঁচে যাওয়া এক ব্যক্তির শরীর থেকে সিরাম নেওয়া হয়েছিল। সেখান থেকেই কোভিড-১৯ ভাইরাসের সম্ভাব্য দুর্বল জায়গাটির সন্ধান পাওয়া গেল। এই পরিস্থিতিতে করোনার প্রতিষেধক খুঁজতে মরিয়া বিভিন্ন দেশ। কিছু দেশে নির্দিষ্ট ওষুধ পরীক্ষামূলকভাবে ব্যবহার করে সফলতা এসেছে বলেও দাবি বিশেষজ্ঞদের। প্রতিষেধক এখনো বের না হলেও সর্বশেষ দাবিতে জাগল আশার আলো। 

গবেষকদের দাবি, করোনার দুর্বলতার খোঁজ মেলায় ভাইরাসের নতুন টিকা তৈরির পথ খুলবে। এই নিয়ে আরো গবেষণা চালানো হবে। এর জন্য কোভিড-১৯ থেকে সুস্থ হওয়া ব্যক্তির রক্তের খোঁজ করছেন তারা। এই রক্ত থেকে অ্যান্টিবডি কাজে লাগানোর পরিকল্পনা রয়েছে। গবেষণায় বলা হয়েছে,মানুষের পাঁচ ধরনের অ্যান্টিবডি রয়েছে। বিজ্ঞানীরা এমন একটি অ্যান্টিবডির সন্ধান করছেন যেটা করোনা ভাইরাস শনাক্তকরণ এবং তাকে নিষ্ক্রিয় করবে।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা