kalerkantho

রবিবার। ২৪ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭ । ৭ জুন ২০২০। ১৪ শাওয়াল ১৪৪১

করোনায় 'সিজদায় বেদার' উৎসব হল না ইরানে

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১ এপ্রিল, ২০২০ ১৯:১৯ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



করোনায় 'সিজদায় বেদার' উৎসব হল না ইরানে

করোনাভাইরাসের কারণে এ বছর ইরানীরা তাদের ঐতিহ্যবাহী অনুষ্ঠান 'সিজদায় বিদার' পালন করতে পারলেন না। প্রাচীন জাতীয় এই উৎসবের দিনে সবাই বাড়িতে থাকতে বাধ্য হয়েছে।

সমস্ত রাস্তা-ঘাট ফাঁকা এবং নীরব ছিল। মনে হয়েছে শহরগুলিতে এখন কোন মানুষ নেই। ২০২০ সালের ১ এপ্রিল বন্ধ ছিল সমস্ত দোকান-পাট, গাড়ির হর্ন নেই, ট্রাফিক জ্যাম নেই চারদিকে শুনসান নীরবতা। দেখে মনে হচ্ছে শহরগুলি জনশূন্য। তবে প্রতিটি ঘরেই জীবন চলছে। তবে সেটা শুধুই অনাগত মৃত্যুর অপেক্ষায় বেঁচে থাকা। এমন পরিস্থিতিতে কি  আর উৎসব হয়?

করোনাভাইরাসের বিরুদ্ধে লড়াইয়ের জন্য সরকারি নির্দেশনা মেনে পুলিশ এ বছর জনগণকে বাড়িতে অবস্থান করতে বলেছে। জনগণও রাস্তায় বের হয়নি। পুলিশের তরফে আগেই বলা হয়েছিল, যারা রাস্তাঘাট এবং বাগানের আশেপাশে পুলিশ অবস্থান করবে। কাউকে রাস্তায় দেখলে তাদের গাড়ি থামানো হবে এবং ৫ লাখ আইআরআর জরিমান করা হবে।

ইরানের নাগরিকরা 'সিজদা বেদার' উৎসব পালন করে প্রকৃতির মাঝে হারিয়ে গিয়ে। এটি এক ঐতিহ্যবাহী উৎসব। পরিবারের সদস্যদের নিয়ে পার্ক, বনভূমি, পাহাড়ি উপত্যকায় বেড়াতে যাওয়া এবং দিন কয়েক সেখানে বেড়ানোর মধ্যে দিয়ে 'সিজদা বেদার' উৎসব পালন করেন তারা। তাদের সঙ্গে যোগ দেন প্রতিবেশী ও বন্ধুবান্ধবরা।

ইরানে ফারসি বছরের প্রথম মাস ফারভারদিনের ১৩তম দিনে এ উৎসবটি পালিত হয়ে থাকে। এ বছর পয়লা এপ্রিল ছিল এই উৎসবের দিন। এ প্রাচীন উৎসবের মধ্যে দিয়ে তারা বিদায়ী বছরকে বিদায় জানায় নওরোজের ছুটিতে।

'সিজদা বেদার'এ অনেকে পিকনিকে চলে যান। এ উৎসবে মাথা থেকে খারাপ চিন্তা দূর করে কল্যাণধর্মী কাজে আরো বেশি নিয়োজিত হওয়ার আকাঙ্ক্ষা ধারণ করার চেষ্টা থাকে সবার মাঝে। প্রকৃতির সৌন্দর্যে তারা সাড়া দেন। উৎসবের সময় খেলাধুলা, বিশেষ খাবারের আয়োজন, বসন্তকে বরণ করে নেওয়ার মত নানা আয়োজনে মেতে ওঠেন সবাই।

 

সূত্র-ইরান ফ্রন্টপেজ।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা