kalerkantho

সোমবার  । ১৬ চৈত্র ১৪২৬। ৩০ মার্চ ২০২০। ৪ শাবান ১৪৪১

'হিন্দুয়োঁ কা হিন্দুস্তান','জয় শ্রীরাম' স্লোগানে অগ্নিগর্ভ দিল্লি!‌

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

২৬ ফেব্রুয়ারি, ২০২০ ১০:৪৫ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



'হিন্দুয়োঁ কা হিন্দুস্তান','জয় শ্রীরাম' স্লোগানে অগ্নিগর্ভ দিল্লি!‌

অগ্নিগর্ভ দিল্লি

অগ্নিগর্ভ হয়ে পড়েছে ভারতের রাজধানী। সাম্প্রদায়িক সহিংসতায় জ্বলছে দিল্লি।  দিল্লির আকাশে সারা দিনই কালো ধোঁয়া পাকিয়ে পাকিয়ে উঠেছে। স্লোগান উঠছে, ‘হিন্দুয়োঁ কা হিন্দুস্তান’, 'জয় শ্রীরাম'। সংঘর্ষ পাথর-যুদ্ধ, গুলি, ভীড় জমিয়ে মারধর, অসংখ্য বাড়ি-দোকানে আগুন লাগানো, লুঠতরাজ কিছুই বাকি থাকেনি। ভারতীয় সংবাদসংস্থা এনএনআই সূত্রে সর্বশেষ পাওয়া খবর, দিল্লিতে মৃতের সংখ্যা বেড়ে ১৮ জনে দাঁড়িয়েছে। 

এক মাসের জন্য উত্তর-পূর্ব দিল্লিতে ১৪৪ ধারা জারি করা হয়েছে। উত্তর-পূর্ব দিল্লির গুরু তেগবাহাদুর হাসপাতালে গুরুতর আহতের সংখ্যা লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়ছে। ফলে মৃতের সংখ্যাও বেড়ে যাওয়ার আশঙ্কা।

হাসপাতালের চিকিৎসকেরা জানিয়েছেন, আহতদের প্রায় অর্ধেক গুলিবিদ্ধ। উত্তর-পূর্ব দিল্লির জাফরাবাদ-মৌজপুরে সিএএ-বিরোধী ও সিএএ-পন্থীদের মধ্যে সংঘর্ষ ঘিরে অশান্তি তৈরি হয়েছিল, মঙ্গলবার রাতে সেই অশান্তি পূর্ব দিল্লিতেও ছড়িয়ে পড়েছে। দিল্লির পরিস্থিতি স্বাভাবিক করতে ব্যর্থ হয়েছেন কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ। বারেবারে জরুরি বৈঠক করলেও চিত্র একটুও বদলায়নি। বরং আরও জটিল হয়েছে। দিল্লির সংঘর্ষ নিয়ে সোশ্যাল মিডিয়ায় বহু ভিডিও, ছবি ভাইরাল হয়েছে। এরকমও একটি ভিডিও ছড়িয়ে পড়েছে, যাতে দেখা গিয়েছে, পুলিশই ‘‌জয় শ্রী রাম’ স্লোগান তুলে এক মুসলিম যুবককে মারছে।

এদিকে মাঝরাতে উপদ্রুত সীলামপুরে গিয়ে পুলিশ কর্মকর্তাদের সঙ্গে বৈঠক করেন জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টা (এনএসএ) অজিত ডোভাল। যা দেখে অনেকেই বলছেন, রাজধানীর এক টুকরো অংশের আইনশৃঙ্খলা সামলাতে এনএসএ-কে নামতে হচ্ছে, পুলিশি ব্যর্থতার এক চেয়ে বড় উদাহরণ আর কী হতে পারে।  

 

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা