kalerkantho

শনিবার । ২১ চৈত্র ১৪২৬। ৪ এপ্রিল ২০২০। ৯ শাবান ১৪৪১

‘বিশ্বের ৪০ থেকে ৭০ শতাংশ মানুষ করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হতে পারে’

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১৫ ফেব্রুয়ারি, ২০২০ ২০:৩৭ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



‘বিশ্বের ৪০ থেকে ৭০ শতাংশ মানুষ করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হতে পারে’

হার্ভার্ডের টি.এইচ. চ্যান স্কুল অব পাবলিক হেলথের অধ্যাপক মার্ক লিপসিচ।

প্রাণঘাতী নভেল করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে চীনে মৃত্যুর সংখ্যা এক হাজার পাঁচশ ছড়িয়েছে। চীনে ১৪ ফেব্রুয়ারি মধ্যরাত পর্যন্ত ৩১টি রাজ্য থেকে হতাহতের এই খবর পাওয়া যায়। এছাড়াও বিশ্বের প্রায় ২৫টি দেশে ছড়িয়ে পড়েছে করোনাভাইরাস। 

করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে শনিবার ফ্রান্সে একজনের মৃত্যু হয়েছে। এর আগে চীনের বাইরে ফিলিপাইন, হংকং এবং জাপানে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মৃত্যুর ঘটনা ঘটেছে। করোনা আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়েছে সারা বিশ্বে। এমন আতঙ্কের মধ্যে হার্ভার্ডের এক অধ্যাপক আতঙ্ক আরো কয়েকগুন বাড়িয়ে ঘুম হারাম করে দেওয়ার মতো তথ্য দিয়েছেন।

হার্ভার্ডের টি.এইচ. চ্যান স্কুল অব পাবলিক হেলথের অধ্যাপক মার্ক লিপসিচ বলেন, আমরা বিশ্বব্যাপী করোনাভাইরাসের একটি মহামারি দেখতে যাচ্ছি। সারা বিশ্বের মোট জনসংখ্যার ৭০ শতাংশ মানুষ করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হতে পারে। তিনি বলেন, আমি মোট সংখ্যাটি বলতে পারছি না। তবে ৪০ শতাংশ থেকে ৭০ শতাংশ মানুষ আক্রান্ত হতে পারে।

এর আগে হংকংয়ের প্রথম সারির গবেষক গ্যাব্রিয়েল লিউং বলেন, সাধারণভাবে যদি ধরা যায় এক জন আক্রান্তের শরীর থেকে এই ভাইরাস গড়ে দুইয়ের বেশি মানুষের শরীরে ছড়িয়ে পড়ছে, তা হলেই বোঝা যাবে আক্রান্তের সংখ্যা কতটা বিপুল হতে পারে। বিশ্বের ৬০ থেকে ৮০ শতাংশ মানুষ ভাইরাসের সংস্পর্শে এসে গেলেও অবাক হওয়ার কিছু থাকবে না। 

গ্যাব্রিয়েল বলেন, ভাইরাস তো শুধু উহানে বন্দি নেই, বেইজিংসহ চীনের অন্য বড় শহরগুলোতেও ছড়িয়েছে। এখানে বিপুল সংখ্যায় বিদেশিদের আনাগোনা। আর ভাইরাস যাদের শরীরে ঢুকে গেছে, তাদের লক্ষণ এখন বোঝাও যাবে না। যতো দিনে তা বোঝা যাবে ততোদিনে এই ভাইরাস আরও অনেকের মধ্যে ছড়িয়ে যাবে।

কিছু দিন যেতেই মিলে গেল তার সেই ভবিষ্যদ্বাণী। একে একে অন্য দেশ থেকেও ভাইরাসে আক্রান্তের খবর আসতে লাগল। চীনের বাইরে যুক্তরাষ্ট্র, যুক্তরাজ্য কানাডা, জার্মানি, ফ্রান্স, অস্ট্রেলিয়াসহ ২৫টি দেশে ছড়িয়ে পড়েছে করোনাভাইরাস। এদিকে, ১৫ জন করোনা আক্রান্ত রোগীর সান্ধান পাওয়া গেছে যুক্তরাষ্ট্রে। এছাড়াও অস্ট্রেলিয়ায় ১৫ জন, জার্মানিতে ১৪ জন, ফ্রান্সে ১১ জন, যুক্তরাজ্যে ৯ জন এবং কানাডায় সাত জন করোনাভাইরাস আক্রান্তের সন্ধান পাওয়া গেছে।

গত মঙ্গলবার নিউ সায়েন্টিস্ট নামক জার্নালে প্রকাশিত এক প্রতিবেদনে মাইকেল লে পেজ এবং দেবোরা ম্যাকেনজি লেখেন, করোনভাইরাসে বিশ্বের জনসংখ্যার ৬০ শতাংশ মানুষ আক্রান্ত হতে পারে। তাদের মধ্যে প্রতি একশ জনের মধ্যে একজন মারা যেতে পারেন। এই বিষয়ে কেউ কিছুই জানেন না। কারণ এই নতুন করোনাভাইরাস সম্পর্কে এখনো অনেক কিছুই আমরা জানি না।

ইমপেরিয়াল কলেজ লন্ডনের জনস্বাস্থ্য বিভাগের প্রফেসর নেইল ফারগুসোন করোনভাইরাস নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন। তিনি বলেন, আমরা জানি না সবাই যদি করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয় তাহলে কতো মানুষ মারা যাবে। কি অনুপাতে মারা যাবে এবং এর ঝুঁকি কি? আমাদের করা হিসাব অনুযায়ী বৃটেনে যারা আক্রান্ত হবেন তাদের মধ্যে এক শতাংশ মারা যাবেন। আর এক শতাংশ মারা গেলে এর সংখ্যা দাঁড়াবে প্রায় চার লাখ।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা