kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ১৪ ফাল্গুন ১৪২৬ । ২৭ ফেব্রুয়ারি ২০২০। ২ রজব জমাদিউস সানি ১৪৪১

খাবার দেখে বাংলাদেশি সন্দেহ, শ্রমিকদের তাড়িয়ে দিলেন বিজেপি নেতা

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

২৪ জানুয়ারি, ২০২০ ১৪:০৪ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



খাবার দেখে বাংলাদেশি সন্দেহ, শ্রমিকদের তাড়িয়ে দিলেন বিজেপি নেতা

নিজের বাড়িতেই বাংলাদেশি খুঁজে পেয়েছেন কৈলাস বিজয়বর্গীয়। সেটাও আবার শ্রমিকদের খাদ্যাভ্যাস দেখে সন্দেহ হয়েছে বিজেপির এই নেতার। বিষয়টি তার অদ্ভুত লেগেছে বলেই সম্মেলনে জানিয়েছেন কৈলাস বিজয়বর্গীয়। তার সেই মন্তব্যের জেরে বিতর্কের সৃষ্টি হয়েছে।

এর আগে ঝাড়খণ্ড নির্বাচনের সময় জনসভায় বক্তব্য দেওয়ার সময় ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি বলেছিলেন, বিক্ষোভকারীদের পোশাক দেখে চেনা যায়। সেই মন্তব্য করে বিতর্কে জড়িয়েছিলেন মোদি। এবার সেই পথেই হেঁটে খাবার দেখে বাংলাদেশি চিহ্নিত করে দিলেন বিজেপির এই নেতা।

জানা গেছে, নাগরিকত্ব সংশোধনী বিলের সমর্থনে একটি সম্মেলনে বৃহস্পতিবার কৈলাস বলেন, সম্প্রতি তার বাড়িতে একটি অতিরিক্ত ঘর তৈরির কাজ হচ্ছিল। তখন কিছু শ্রমিক তার বাড়িতে কাজ করছিলেন। তাদের খাবার দেখে সন্দেহ হয় কৈলাসের। তারা নাকি চিঁড়ে খাচ্ছিলেন। 

শ্রমিকদের চিঁড়ে খেতে দেখেই তাদের বাংলাদেশি বলে সন্দেহ হয় কৈলাসের। সে কথাই তিনি সম্মেলনে বলেন। তিনি জানিয়েছেন, আমার সন্দেহ তারা বাংলাদেশি ছিল। দু’দিন দেখার পর আমি বাড়ির কাজ বন্ধ করে দিই। আমি পুলিশের কাছে এখনো কোনো অভিযোগ করিনি। কিন্তু সবাইকে সাবধান থাকার জন্য জানালাম।

বিজেপির এই নেতার মন্তব্যে বিতর্কের সৃষ্টি হয়েছে। মূলত চিঁড়ে বাঙালিরাই খায়, এমনটা নয়। ভারতের বহু রাজ্যে এর ভিন্ন ভিন্ন নাম। চাল থেকে তৈরি হওয়া এই খাবার কখনো ভেজে, আবার পানিতে বা দুধে ভিজিয়ে খাওয়া যায়। কেউ কেউ আবার শুকনো খাওয়া যায়। সুলভ মূল্যের এই খাদ্য ভারতবর্ষের বহু রাজ্যের মানুষ খান। 

পুষ্টিগুণে পূর্ণ এই খাবার ধনী-গরিব সব শ্রেণির মানুষের কাছেই গ্রহণযোগ্য খাবার। কিন্তু বিজেপি নেতা খাবারের মধ্যেও বিভাজনের নীতি প্রয়োগ করছেন বলে মত রাজনৈতিক বিশ্লেষকদের। আর চিঁড়ে শুধু বাংলা ভাষীদের খাবার নয় বা বাংলায় কথা বললেই যে তাকে বাংলাদেশি হিসেবে চিহ্নিত করে দিতে হবে এমনটাও কারণ নয় বলে মত বিরোধীদের।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা