kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ২৩ জানুয়ারি ২০২০। ৯ মাঘ ১৪২৬। ২৬ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪১          

ভারতীয় মুসলিমদের পাশে থাকার আহবান

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১৫ ডিসেম্বর, ২০১৯ ১২:০৭ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



ভারতীয় মুসলিমদের পাশে থাকার আহবান

ফাইল ছবি

সম্প্রতি ভারতে বিতর্কিত নাগরিকত্ব সংশোধনী বিল পাস হয়েছে। বিলটি অনুমোদন পাওয়ার পর তা আইনে পরিণত হয়ে। এ নিয়ে উত্তাল হয়ে পড়েছে দেশটির কয়েকটি রাজ্য। ভারতীয় মুসলিমদের কোনঠাসা করতেই এই নতুন আইনটি করা হয়েছে বলে মনে করছেন অনেকে। এদিকে এই আইনের তীব্র প্রতিবাদ জানিয়েছে পাকিস্তান। দেশটির মুসলিমদের পাশে দাঁড়াতে আহ্বান জানিয়েছেন পাকিস্তানের রেলমন্ত্রী। লাহোরে এক ভাষণে পাকিস্তানি রেলমন্ত্রী শেখ রশিদ আহমেদ এ আহ্বান জানান।


শেখ রশিদ আহমেদ বলেছেন, কাশ্মীর ও ভারতের মুসলিমদের পাশে থাকা আমাদের দায়িত্ব।  মোদি যেভাবে ভারতের মুসলিমদের জন্য সমস্যা তৈরি করছেন, তাতে ভারত-পাকিস্তান দুই দেশের মধ্যে বিভেদ বাড়বে। এর ফলে দুই দেশ যুদ্ধের মুখোমুখি হতে পারে।

জানা গেছে, এর আগে পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান ভারতের নাগরিকত্ব বিলের কড়া সমালোচনা করেন। তিনি টুইটে লিখেছিলেন, এই বিলের ফলে ভারতের সঙ্গে দ্বিপাক্ষিক চুক্তি লঙ্ঘিত হয়েছে। আন্তর্জাতিক স্তরে মানবাধিকার বিরোধী এই বিল। সংখ্যালঘুদের অধিকার লঙ্ঘিত হবে এই বিল পাস হওয়ার ফলে।

ভারতের কট্টর হিন্দুত্ববাদী বিজেপি সরকার যে পথে হাঁটছে, তাতে সেখানকার ২০ কোটি মুসলমানের মধ্যে এই আশঙ্কা ক্রমে দানা বাঁধছে যে শিগগিরই তাদের অনুপ্রবেশকারীর তকমা দেওয়া হবে। বিশ্লেষকরা বলছেন, নাগরিকত্ব ইস্যুতে মোদি সরকারের গৃহীত পদক্ষেপে এটা পরিষ্কার যে তারা কেবল মুসলমানদেরই ভারত থেকে তাড়াতে চাইছে।

ভারতে বিতর্কিত নাগরিকত্ব সংশোধনী বিল নিয়ে বেশ কিছুদিন ধরেই উত্তাল হয়ে পড়েছে আসামসহ কয়েকটি রাজ্য। নতুন নাগরিকত্ব আইনের ফলে আফগানিস্তান, পাকিস্তান ও বাংলাদেশ থেকে আসা হিন্দু, শিখ, জৈন, পার্সি, বৌদ্ধ ও খ্রিস্টান ধর্মাবলম্বী মানুষ, যারা ভারতে শরণার্থী হিসেবে রয়েছেন তাদের নাগরিকত্ব দেওয়া হবে। এক্ষেত্রে বিপাকে পড়বেন কয়েক কোটি মুসলমান। 

সূত্র : এএনআই

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা