kalerkantho

শুক্রবার । ২৪ জানুয়ারি ২০২০। ১০ মাঘ ১৪২৬। ২৭ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪১     

‘ডাক্তারের কাছে গিয়ে জিজ্ঞেস করেন হিন্দু না মুসলিম?’

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

৯ ডিসেম্বর, ২০১৯ ২২:১৩ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



‘ডাক্তারের কাছে গিয়ে জিজ্ঞেস করেন হিন্দু না মুসলিম?’

লোকসভায় নাগরিকত্ব সংশোধনী বিল উপস্থাপন করেছেন ভারতের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী। বিল পেশ করার পরই তীব্র বিরোধিতা করেন বিরোধীরা। সোমবার সকাল থেকেই এই ইস্যুতে উত্তাল ছিল লোকসভা। আজ সন্ধ্যায় এই ইস্যুতে কেন্দ্রীয় সরকারকে আক্রমণ করেন পশ্চিমবঙ্গের তৃণমূল সাংসদ অভিষেক ব্যানার্জি। একের পর এক প্রশ্ন ছুঁড়ে দেন সরকারের দিকে।

আজ তিনি সরকারকে আক্রমণ করতে গিয়ে স্বামী বিবেকানন্দের কথা তুলে আনেন। অভিষেক বলেন, স্বামী বিবেকানন্দ আজ এই বিল দেখলে চমকে যেতেন। ১২৬ বছর আগে বিবেকানন্দ যে কথা বলেছিলেন, আজ একেবারে উল্টো কথা বলছে বিজেপি সরকার। বিবেকানন্দের ঐক্যের ধারণা ভেঙে, মোদি সরকার বিভেদের ধারণায় বিশ্বাস করছে।

নাগরিকত্ব বিলে ধর্মের বিভেদ তৈরি হয়েছে, এমন দাবি আগেও জানিয়েছেন বিরোধীরা। সোমবার সকালেও অধীর চৌধুরি বলেন, সংখ্যালঘুদের বিরোধিতা করতেই এই বিল আনা হয়েছে। সে কথা আরো একবার বলেন ডায়মন্ড হারবারের সাংসদ। 

তিনি বলেন, অসুস্থ হলে ডাক্তারকে গিয়ে জিজ্ঞেস করেন হিন্দু না মুসলিম? আ্যাম্বুলেন্স ডাকলে জিজ্ঞেস করেন হিন্দু না মুসলিম?

এনআরসি আতঙ্কে পশ্চিমবঙ্গে একাধিক জনের মৃত্যু হয়েছে, সে কথাও উল্লেখ করে অভিষেক বলেন, এই মৃত্যুর দায় কার? আজ লোকসভায় অমিত শাহ বলেন, ধর্মীয় কারণে বিতাড়িত মানুষদের নাগরিকত্ব দেবার জন্য এই বিল। এই বিলের দ্বারা কোনো মুসলিমের অধিকার হরণ করা হবে না, আইন অনুযায়ী সকলে আবেদন করতে পারবে এবং নাগরিকত্ব লাভ করবে।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা