kalerkantho

শনিবার । ০৭ ডিসেম্বর ২০১৯। ২২ অগ্রহায়ণ ১৪২৬। ৯ রবিউস সানি ১৪৪১     

মুসলিম ফিরোজকে সংস্কৃতের শিক্ষক মানতেই চায় না হিন্দু বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

৪ ডিসেম্বর, ২০১৯ ১৮:২৬ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



মুসলিম ফিরোজকে সংস্কৃতের শিক্ষক মানতেই চায় না হিন্দু বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা

সংস্কৃতের অধ্যাপক ফিরোজ খানের নিয়োগকে কেন্দ্র করে নতুনভাবে অশান্ত হয়ে উঠেছে ভারতের বেনারস হিন্দু বিশ্ববিদ্যালয়। বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষের জবাব সন্তোষজনক না হওয়ায় আবারো বিক্ষোভের পথে হাঁটলেন শিক্ষার্থীরা। 

অধ্যাপকদের ভবনের বাইরে বিক্ষোভ প্রদর্শন করলেন শিক্ষার্থীরা। এর আগে অ-হিন্দু শিক্ষক কেন সংস্কৃত পড়াবেন, সেই প্রশ্নে উত্তাল হয়ে ওঠে বেনারস হিন্দু বিশ্ববিদ্যালয়। ওই ইস্যুতে বিক্ষোভ শুরু করেন শিক্ষার্থীরা। পরে কর্তৃপক্ষের আশ্বাসে তারা বিক্ষোভ কর্মসূচি তুলে নেন। বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষের কাছে নিজেদের দাবিও জানান।

এ প্রসঙ্গে সংস্কৃতবিদ্যা ধর্ম বিজ্ঞানের গবেষণা বিভাগের ছাত্র শশীকান্ত মিশ্র বলেন, আমরা আবারো আন্দোলনে নামলাম। কর্তৃপক্ষের জবাব সন্তোষজনক নয়। আমাদের সামান্য দাবি ছিল। বিশ্ববিদ্যালয়ের অন্য কোনো বিভাগে পড়ান অধ্যাপক ফিরোজ খান। কিন্তু সংস্কৃতবিদ্যা ধর্ম বিজ্ঞান বিভাগে নয়। আমাদের দাবি উপেক্ষা করতে দেব না বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষকে। যদি আমাদের দাবি পূরণ না হয়, তাহলে বৃহত্তর আন্দোলনের পথে হাঁটব। 

প্রসঙ্গত, বিশ্ববিদ্যালয়ে কলা ও আয়ুর্বেদ বিভাগেও অধ্যাপনার জন্য আবেদন করেছেন অধ্যাপক ফিরোজ খান। কয়েকদিন আগে বেনারস হিন্দু বিশ্ববিদ্যালয়ের সংস্কৃতবিদ্যা ধর্ম বিজ্ঞান (এসভিডিভি) বিভাগে যোগদান করেন সংস্কৃতে ডক্টরেট ফিরোজ খান। 

আর তারপরই শুরু হয় সমালোচনা। যদিও আন্দোলনকারীদের বক্তব্য, বিশ্ববিদ্যালয়ে মুসলিম শিক্ষক নিয়োগের বিষয়টির বিরোধিতা করছেন না তারা। বরং কেন একজন অ-হিন্দু শিক্ষক সংস্কৃত পড়াবেন, সেখানেই তাদের প্রশ্ন। যদিও ফিরোজ খানের পাশে রয়েছেন বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ। তাদের বক্তব্য, মেধার ভিত্তিতে নিয়োগ পেয়েছেন ফিরোজ খান, ধর্মের ভিত্তিতে নয়।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা