kalerkantho

শুক্রবার । ১৩ ডিসেম্বর ২০১৯। ২৮ অগ্রহায়ণ ১৪২৬। ১৫ রবিউস সানি          

‘আমাকে পছন্দ না হলে প্রকাশ্যে বলুন, সমালোচনা করুন’

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

২২ নভেম্বর, ২০১৯ ২১:৩১ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



‘আমাকে পছন্দ না হলে প্রকাশ্যে বলুন, সমালোচনা করুন’

পার্লামেন্টে এমপিদের অনুপস্থিতির ব্যাপারে শুরুতেই সাবধান করে দিয়েছিলেন মালয়েশিয়ার প্রধানমন্ত্রী মাহাথির মোহাম্মদ। গুরুত্বপূর্ণ উপনির্বাচনে দলের পরাজয়ের পর আরেকবার সেই সতর্কবাণী উচ্চারণ করলেন তিনি। সেই সঙ্গে পার্লামেন্টে এমপিদের অনুপস্থিতিতে ক্ষোভ ও হতাশাও প্রকাশ করেছেন তিনি।

তিনি বলেন, এমপিদের অনুপস্থিতি যদি তার নেতৃত্বের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ হয়, তাহলে এমন প্রতিবাদ জানানোর তো আরও অনেক উপায় আছে। তার ভাষায়, ‘আমাকে পছন্দ না হলে প্রকাশ্যে বলেন। সমালোচনা করুন। সমালোচনার জন্য আমি উন্মুক্ত।’ খবর মালয় মেইলের।

৯৩ বছর বয়সেও সফলভাবে প্রধানমন্ত্রীর দায়িত্ব পালন করছেন মাহাথির। মন্ত্রিসভা ও এমপিদের নিয়মিত অফিসে আসার ব্যাপারে গুরুত্ব দেন। কিন্তু এমপিদের অনেকেই তাদের প্রতিশ্রুতি রাখছেন না। ঠিকমতো দায়িত্ব পালন করছেন না। চলতি সপ্তাহে একটি উপ-নির্বাচনে পরাজিত হয়েছে মাহাথিরের দল পাকাতান হারাপান। এজন্য এমপি ও মন্ত্রীদের এই স্বেচ্ছাচারিতাকেই দায়ী করেন মাহাথির।

হুঁশিয়ারি দিয়ে বলেন, মন্ত্রিপরিষদ ঢেলে সাজানোর প্রয়োজন। তিনি বলেন, ‘এ নিয়ে সংসদ সদস্যদের সঙ্গে আমরা কথা বলব। তারা প্রার্থী হওয়ার জন্য খুব মুখিয়ে ছিলেন। কিন্তু নির্বাচিত হওয়ার পর এমন আচরণ করছেন, যা দেখে মনে হচ্ছে তারা আর জনগণের সেবার বিষয়টি খুব গুরুত্ব দিচ্ছেন না।’

বুধবার পার্লামেন্টে ২২২ জন এমপির মধ্যে মাত্র ২৪ জন উপস্থিত ছিলেন। এখানে কোরাম পূর্ণ করতে কমপক্ষে ২৬ জন এমপির উপস্থিতি প্রয়োজন। ফলে দেওয়ান রাকায়েত মিটিং স্ট্যান্ডিং অর্ডার নাম্বার ১৩(১)-এর অধীনে স্পিকার পার্লামেন্টের অধিবেশন বিলম্বিত করেন। কোরাম সংকটের কারণে অক্টোবরেও একবার পার্লামেন্ট অধিবেশন বিলম্বিত করা হয়েছিল।

মাহাথির বলেছেন, পার্লামেন্টে উপস্থিতিই হবে মন্ত্রিপরিষদক ঢেলে সাজানোর ক্ষেত্রে অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ সূচক। যারা বেশি বেশি অনুপস্থিত থাকবে, মন্ত্রিসভা থেকে তাদের বাদও দেয়া হতে পারে।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা