kalerkantho

শুক্রবার । ১৩ ডিসেম্বর ২০১৯। ২৮ অগ্রহায়ণ ১৪২৬। ১৫ রবিউস সানি          

বিতর্কিত সাধ্বী প্রজ্ঞা ভারতের প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের পরামর্শদাতা কমিটিতে

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

২১ নভেম্বর, ২০১৯ ১৬:২৬ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



বিতর্কিত সাধ্বী প্রজ্ঞা ভারতের প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের পরামর্শদাতা কমিটিতে

ভারতের মালেগাঁও বিস্ফোরণে অভিযুক্তদের মধ্যে তার নাম রয়েছে। অস্ত্র ও বিস্ফোরক আইনেও মামলা রয়েছে তার বিরুদ্ধে। সেই সাধ্বী প্রজ্ঞা সিংহ ঠাকুরকেই ভারতের প্রতিরক্ষা বিষয়ক পরামর্শদাতা কমিটিতে অন্তর্ভূক্ত করা হয়েছে। বিতর্কিত এই সাংসদের প্রতিরক্ষার মতো স্পর্শকাতর মন্ত্রণালয়ের উপদেষ্টা কমিটিতে অন্তর্ভূক্তির বিষয়টি ঘিরে তীব্র বিতর্কের সৃষ্টি হয়েছে। কংগ্রেস বলছে, এটা ভারতের পুরো সামরিক বাহিনীর অপমান।

এই পরামর্শদাতা কমিটির সদস্য নির্বাচন ও নিয়োগ সরাসরি ভারতের সংসদ করে না। সেই কাজ করে সংসদ বিষয়ক মন্ত্রণালয়। কমিটির সদস্যরা আলাপ আলোচনার মাধ্যমে কোনো সিদ্ধান্ত নিয়ে সে অনুসারে মন্ত্রণালয়কে পরামর্শ দেয়। পাশাপাশি কোনো সুপারিশও করতে পারে। 

কিন্তু সেই পরামর্শ বা সুপারিশ কার্যকর করতেই হবে, এমন কোনো নিয়ম নেই। প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় সেগুলো বিবেচনা করে সিদ্ধান্ত নেয়। গত ৩১ অক্টোবর এই কমিটিতেই নতুন সদস্য হিসেবে সাধ্বী প্রজ্ঞার নাম বিজ্ঞপ্তি দিয়ে জানায় ভারতের কেন্দ্রীয় সরকার। কমিটির অন্যান্য সদস্যদের মধ্যে রয়েছেন ন্যাশনাল কনফারেন্স নেতা ফারুক আবদুল্লাহ। তিনি কাশ্মীরে ৩৭০ অনুচ্ছেদ রদের পর থেকেই গৃহবন্দি। ফলে সংসদের শীতকালীন অধিবেশনেও দেখা যায়নি তাকে।

কিন্তু ভোপালের সাংসদ সাধ্বী প্রজ্ঞাকে এই কমিটিতে নেওয়ায় বিতর্ক দানা বেঁধেছে। এই সিদ্ধান্তের তীব্র সমালোচনা করেছে কংগ্রেস। দলের পক্ষ থেকে টুইট করে জানানো হয়েছে, জঙ্গি হামলায় অভিযুক্ত ও গডসের ভক্তকে সরকার প্রতিরক্ষার মতো প্যানেলে রেখেছে। এটা ভারতের সামরিক বাহিনীর, সম্মাননীয় সাংসদদের এবং প্রতিটি ভারতীয়ের অপমান।

কংগ্রেস নেতা প্রণব ঝা বলেন, যার বিরুদ্ধে আদালতে এমন মামলা চলছে, তাকে কমিটিতে নিয়ে আসা গণতন্ত্রের পক্ষে ভালো নয়। সংবিধান সব কিছু বলে দেয় না, কিছু সিদ্ধান্ত মানবিকতার দিক থেকেও নিতে হয়। সিদ্ধান্ত পুনর্বিবেচনার দাবিও জানিয়েছেন তিনি।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা