kalerkantho

শনিবার । ১৪ ডিসেম্বর ২০১৯। ২৯ অগ্রহায়ণ ১৪২৬। ১৬ রবিউস সানি               

তাপমাত্রা শূন্যের নিচে : তুষারপাতে বিপর্যস্ত কয়েকটি দেশ

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

২০ নভেম্বর, ২০১৯ ১৭:৩০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



তাপমাত্রা শূন্যের নিচে : তুষারপাতে বিপর্যস্ত কয়েকটি দেশ

তাপমাত্রা শূন্যের নিচে নেমে যাওয়ায় ব্যাপক তুষারপাত হয়েছে বিশ্বের কয়েকটি দেশে। যার ফলে বিপর্যস্ত হয়ে পড়েছে দেশগুলোর জনজীবন। এর মধ্যে, ভারী তুষারপাত ও ঝড়ো হাওয়ার কারণে চীনের হেইলংজিয়াং প্রদেশে দুর্যোগ সতর্কতা জারি করা হয়েছে।

তুষারধসের আশঙ্কায় অস্ট্রিয়ার কিছু অঞ্চলে জরুরি অবস্থা জারি করেছে দেশটির সরকার। একই দিন রাশিয়ারও কয়েকটি অঞ্চলের তাপমাত্রা শূন্যের অনেক নিচে থাকায় তীব্র তুষারপাত হয়।

শুভ্র তুষারে ঢেকে আছে পথঘাট। তার সঙ্গে ঝোড়ো হাওয়ায় আরও বেড়েছে জনদুর্ভোগ। মঙ্গলবার চীনের হেইলংজিয়াং প্রদেশের প্রায় সব ক'টি এলাকার রাস্তায় ৩০ মিলিমিটার পর্যন্ত বরফ জমে। এতে বন্ধ হয়ে যায় যান চলাচল। পরিস্থিতির আরও অবনতির আশঙ্কায় জরুরি দুর্যোগ সতর্কতা জারি করেছে সরকার। আবহাওয়া অনুকূলে না আসা পর্যন্ত স্থানীয় সব শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে।

রাশিয়ার পূর্বাঞ্চলীয় কয়েকটি শহরে তাপমাত্রা নেমে এসেছে মাইনাস ৩৯ ডিগ্রি সেলসিয়াসে। বরফে ঢাকা পড়েছে বাড়িঘর, গাছপালা, রাস্তাঘাট, পার্কিং করা গাড়ি। তুষারপাত অব্যাহত থাকায় সামান্য দূরের জিনিসও দেখা কঠিন হয়ে পড়েছে। এর ফলে অনেক অঞ্চলে এখনও বিদ্যুৎ সংযোগ বিচ্ছিন্ন রয়েছে।

এদিকে টানা দুইদিন তুষারপাতের পর মঙ্গলবার সকালেও অস্ট্রিয়ার রাস্তায় দেখা যায় পুরু বরফের আস্তর। ঝড় আর তুষারধসের আশঙ্কায় দেশটির একাংশে ইতোমধ্যেই জরুরি অবস্থা জারি করেছে সরকার। এখনও বন্ধ রয়েছে বিভিন্ন এলাকার সড়ক, রেল ও আকাশপথ। রোববার থেকে প্রায় দুই হাজার পরিবার বিদ্যুৎ বিচ্ছিন্ন থাকায় ভোগান্তি পৌঁছেছে চরমে।

এদিকে, মঙ্গলবার অস্ট্রিয়ায় আল্পস পর্বতমালার কাছে দেখা যায় ভূমিধস। সতর্কতামূলক ব্যবস্থা হিসেবে নিরাপদ স্থানে সরিয়ে নেয়া হয় প্রায় ৩০টি পরিবারকে। আরও এক হাজার মানুষকে আশ্রয়কেন্দ্রে আশ্রয় নেয়ার নির্দেশ দিয়েছে কর্তৃপক্ষ। এদিকে যান চলাচল স্বাভাবিক করতে রাস্তা থেকে বরফ পরিষ্কারের কাজ শুরু করেছেন উদ্ধারকারী দলের সদস্যরা।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা