kalerkantho

রবিবার । ১৫ ডিসেম্বর ২০১৯। ৩০ অগ্রহায়ণ ১৪২৬। ১৭ রবিউস সানি                    

ছেলে সন্তান হয়নি বলে তিন তালাক!

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১৯ নভেম্বর, ২০১৯ ১৬:৪৪ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



ছেলে সন্তান হয়নি বলে তিন তালাক!

ভারতের তেলঙ্গানায় ছেলে সন্তান জন্ম দিতে না পারায় এক নারীকে তিন তালাক দেওয়ার অভিযোগ ওঠেছে। স্বামীর বিরুদ্ধে থানায় অভিযোগও জানান ওই নারী। তার দাবি, তাকে ও তার সন্তানকে বাড়িতে রাখতে চাননি স্বামী।

২০১১ সালে মেহরাজ বেগমের বিয়ে হয়। বিয়ের দেড় বছরের মাথায় মেহরাজ সন্তানসম্ভবা হন। যদিও গর্ভস্থ অবস্থাতেই সেই সন্তান নষ্ট হয়ে যায়। এরপর স্বামী ও শ্বশুরবাড়ির লোকজন তার ওপর অত্যাচার শুরু করেন। পরে ২০১৬ সালে তিনি এক কন্যা সন্তানের জন্ম দেন। এরপর অত্যাচার আরো বেড়ে যায়। মেহরাজ ও তার সন্তানকে বাড়িতে রাখতে চাননি স্বামী। 

ভারতের জনপ্রিয় সংবাদমাধ্যম আনন্দবাজার সূত্রে জানা যায়, সন্তান বিষয়ে পরামর্শ নেওয়ার জন্য মেহরাজ তার স্বামীকে নিয়ে চিকিত্সকের কাছে যান। কিন্তু তাতেও কোনো কাজ হয় না। মেহরাজের স্বামী পুত্র সন্তান না হওয়ার জন্য স্ত্রীকেই দোষারোপ করতে থাকেন। পরে গত ১৯ সেপ্টেম্বর মেহরাজকে তিন তালাক দেন তার স্বামী। মেহরাজ স্বামীকে বিষয়টি বিবেচনায় নিতে অনুরোধ করেন। কিন্তু কোনো কথাই শুনতে চাননি তিনি।

সংবাদ সংস্থা এএনআইকে মেহরাজ জানান, তাকে বাড়ি ছেড়ে চলে যাওয়ার জন্য চাপ দিতে থাকেন তার স্বামী। না গেলে, তার সঙ্গে তিন বছরের কন্যা সন্তানের ক্ষতি হবে বলেও হুমকি দেওয়া হয়। হুমকির মুখে বাড়ি ছেড়ে বাপের বাড়িতে চলে যান মেহরাজ বেগম।

স্বামীর বিরুদ্ধে মেহরাজ বেগম থানায় অভিযোগ দায়ের করেছেন। পুলিশের কাছে তিনি জানান, স্বামী ফের বিয়ে করতে চান। তাই তাকে তিন তালাক দিয়ে অত্যাচার করে বাড়ি থেকে তাড়ানো হয়েছে।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা