kalerkantho

শুক্রবার । ০৬ ডিসেম্বর ২০১৯। ২১ অগ্রহায়ণ ১৪২৬। ৮ রবিউস সানি ১৪৪১     

বাবরি মসজিদ স্থাপিত হবে সরযু নদীর তীরে?

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১১ নভেম্বর, ২০১৯ ১৩:১০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



বাবরি মসজিদ স্থাপিত হবে সরযু নদীর তীরে?

সরযু নদী

শনিবার ভারতের সুপ্রিম কোর্ট বহুল আলোচিত বাবরি মসজিদ মামলার রায় ঘোষণা করেছে। এই রায়ে  সুপ্রিম কোর্ট নির্দেশ দিয়েছে মসজিদ নির্মাণের জন্য অযোধ্যায় পাঁচ একর জমি দেওয়া হবে। সেই জমি রাম জন্মভূমি-বাবরি মসজিদ কমপ্লেক্সের নিকটবর্তী অঞ্চলে সুন্নি ওয়াকফ বোর্ডকে সরবরাহ করা যাবে না। তবে কোথায় সুন্নি ওয়াকফ বোর্ডকে জায়গা দেওয়া হবে ? কোথায় গড়ে উঠবে মসজিদ? এ নিয়ে প্রশ্ন উঠেছে। একটি সূত্র জানিয়েছে, সরযূ নদীর অপর পাড়ে তৈরি হতে পারে এই মসজিদ। 

উত্তর প্রদেশের অযোধ্যা শহরটি ঘনবসতিপূর্ণ। এ কারণে শহরের মধ্যে প্রস্তাবিত জমিটি পাওয়া খুব কঠিন হতে পারে। তাই মসজিদের জন্য বিকল্প জায়গা খোঁজা হচ্ছে। সব দিক বিবেচনা করেই বিকল্প বাবরি মসজিদ নির্মাণের জন্য অযোধ্যার অপেক্ষাকৃত ফাঁকা স্থান বেছে নেওয়া হতে পারে । বিকল্প জায়গা হিসেবে উঠে আসছে সরযূ নদীর তীরবর্তী স্থান। তবে যে তীরে রাম জন্মভূমি, তার বিপরীত তীরে কোনও জায়গা বেছে নিতে হবে। 

ভারতের সুপ্রিম কোর্ট বলেছে, অযোধ্যার মধ্যে ৫ একর জায়গা দেওয়া হবে। তবে সেই জায়গাটি কোথায় হবে, তা নির্দিষ্ট করা হয়নি। কয়েকটি সম্ভাবনা ক্ষেত্র উঠে এসেছে। তার মধ্যে একটি হলো সরযু নদীর তীরবর্তী অঞ্চল। আরেকটি জায়গা হলো পঞ্চকোশি। যা ১৫ কিমি দূরত্ব পেরিয়ে অযোধ্যা-ফৈজাবাদ রোডে অবস্থিত। শাহজানওয়া গ্রামে মসজিদটি তৈরির প্রস্তাব দেওয়া হতে পারে। সেখানে বাবরের সেনাপতি মীর বাকীর সমাধিস্থল। 

অভিযোগ, মীর বাকী মন্দিরটি ধ্বংস করে মসজিদ নির্মাণ করেছিলেন। তবে এই গ্রামটি ১৫ কিলোমিটার পরিধির মধ্যে অবস্থিত। যদিও আদালত বিকল্প জমি দেওয়ার আগে সুন্নি ওয়াক্ফ বোর্ডের সাথে সমন্বয় করে চিহ্নিত করতে বলেছে। 

এদিকে, স্থানীয় মুসলিম সম্প্রদায়ের একাংশ জানিয়েছেন, তারা ভেঙে দেওয়া বাবরি মসজিদের জায়গায় মসজিদ নির্মাণের জন্য কোনও জমি চান না। আবার এমন কথাও উঠেছে, তাঁরা আলোচনা করেই ঠিক করবেন কতটা জমি নেবেন, কোথায় জমি নেবেন। 

সূত্র : ওয়ান ইন্ডিয়া 

 

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা