kalerkantho

শুক্রবার । ২২ নভেম্বর ২০১৯। ৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৬। ২৪ রবিউল আউয়াল ১৪৪১     

বাংলাদেশে ফেরার পথে বনগাঁয় ধরা পড়ল ১০৪ জন

অনিতা চৌধুরী, কলকাতা প্রতিনিধি   

৯ নভেম্বর, ২০১৯ ২৩:০৪ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



বাংলাদেশে ফেরার পথে বনগাঁয় ধরা পড়ল ১০৪ জন

ভারতে এনআরসি আতঙ্কে অবৈধভাবে বাংলাদেশে যাওয়ার পথে বিএসএফের হাতে ধরা পড়ল ১০৪ জন অনুপ্রবেশকারী। এরই মধ্যে তাদের বনগাঁ থানার হাতে তুলে দিয়েছে বিএসএফর কর্মকর্তারা। জানা গেছে অধিকাংশই পেটের দায়ে ভারতের বিভিন্ন প্রান্তে কাজ করতেন।

জানা গেছে, শুক্রবার গভীর রাতে বনগাঁ থেকে চোরাইপথে বাংলাদেশ যাওয়ার পথে বিএসএফ জওয়ানদের হাতে ধরা পড়েন ১০৪ জন। বনগাঁ থানার পুলিশের পক্ষ থেকে শনিবার তাদের বনগাঁ মহকুমা আদালতে তোলা হয়েছে। 

আটকরা জানান, অর্থ উপার্জনের জন্যই দেশ ছেড়েছিলেন। কেউ থাকতে শুরু করেছিলেন হায়দরাবাদে, কেউ বা মুম্বাইয়ে। অধিকাংশই সাফাইয়ের কাজে যুক্ত ছিলেন। নারীরা বাড়ি বাড়ি পরিচারিকার কাজ করতেন। আসামের এনআরসি তাদের মনে আতঙ্ক বাসা বেঁধেছিল। এনআরসি হলে ভবিষ্যত কী হবে তা ভেবেই  দেশে ফিরে যাওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন তারা। কিন্তু বৈধ কাগজপত্র না থাকায় অবৈধ পথে দালাল মারফতই দেশে ফিরছিলেন তারা।

ধৃতদের মধ্যে একজন জানান, বাংলাদেশের চিকিৎসকদের পরামর্শে কোনো সুফল মেলেনি। তাই বহুদিন আগে স্ত্রীকে নিয়ে চিকিৎসার জন্য ভারতে এসেছিলেন। কিন্তু চিকিৎসার পর কার্যত কিছুই ছিল না তার কাছে। সম্ভব ছিল না দেশে ফেরার, চিকিৎসাও তখনো বাকি। অগত্যা ভারতেই কাজকর্ম শুরু করেছিলেন তিনি। স্ত্রীকে নিয়ে সংসার পাতেন।  চলছিল স্ত্রীর চিকিৎসাও। 

কিন্তু এনআরসি আতঙ্ক থাবা বসিয়েছে তার মনেও। তাই বাধ্য হয়ে দালাল মারফত দেশে ফেরার পরিকল্পনা করেছিলেন তিনি। দেশে যাওয়ার আগেই পুলিশের জালে ধরা পড়লেন পেটের দায়ে ঘর ছাড়া একশোরও বেশি মানুষ।

অন্যদিকে বনগাঁ থানার এক কর্মকর্তা বলেন, তারা বিষয়টি মানবিকতার দিক দিয়ে চিন্তা করবেন।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা