kalerkantho

বুধবার । ২০ নভেম্বর ২০১৯। ৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৬। ২২ রবিউল আউয়াল ১৪৪১     

ইয়েমেনে সরকার ও এক বিদ্রোহী গোষ্ঠীর শান্তি চুক্তি, খুশি সৌদি যুবরাজ

শিয়া হাউথি বিদ্রোহীদের বিরুদ্ধে একজোট হলো সরকার ও দক্ষিণাঞ্চলীয় বিচ্ছিন্নতাবাদীগোষ্ঠী

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

৬ নভেম্বর, ২০১৯ ১৯:০৭ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



ইয়েমেনে সরকার ও এক বিদ্রোহী গোষ্ঠীর শান্তি চুক্তি, খুশি সৌদি যুবরাজ

যুদ্ধবিধ্বস্ত ইয়েমেনে স্থিতিশীলতা ফেরাতে শান্তি চুক্তিতে পৌঁছেছে দেশটির জাতিসংঘ স্বীকৃত হাদি সরকার এবং দক্ষিণাঞ্চলীয় বিচ্ছিন্নতাবাদীগোষ্ঠী সাউদার্ন ট্রান্সিশনাল কাউন্সিল। দেশটির ইরানপন্থি শিয়া হাউথি বিদ্রোহীদের মোকাবিলায় এই দু পক্ষ হাত মিলিয়েছে। এবার তারা উভয়ে মিলে যুদ্ধ করবে হাউথিদের বিরুদ্ধে।

মঙ্গলবার (৫ নভেম্বর) চুক্তি স্বাক্ষর অনুষ্ঠানে দেয়া বক্তব্যে, একে নতুন অধ্যায়ের সূচনা বলে আখ্যা দিয়েছেন সৌদি যুবরাজ মুহম্মদ বিন সালমান। দু পক্ষের চুক্তিকে স্বাগত জানিয়েছে জাতিসংঘ।

ইরানপন্থি ইয়েমেনের শিয়া হাউথি বিদ্রোহীদের মোকাবিলায় একমত হয়েছে সৌদি সমর্থিত দেশটির হাদি সরকার এবং বিচ্ছিন্নতাবাদীগোষ্ঠী সাউদার্ন ট্রান্সিশনাল কাউন্সিল। 

মঙ্গলবার রিয়াদে দু পক্ষের মধ্যে শান্তিচুক্তি স্বাক্ষর অনুষ্ঠানে দেয়া বক্তব্যে, সৌদি আরবে উভয়পক্ষের উপস্থিতিকে আনন্দময় দিন বলে আখ্যা দেন সৌদি ক্রাউন প্রিন্স।

সৌদি ক্রাউন প্রিন্স মুহাম্মদ বিন সালমান বলেন, ইয়েমেনে শান্তি ও স্থিতিশীলতা প্রতিষ্ঠায় শান্তি চুক্তি নতুন অধ্যায়ের সূচনা করবে বলে আমার বিশ্বাস। আমি প্রতিশ্রুতি দিচ্ছি, সৌদি আরব সবসময় ইয়েমেনিদের পাশে থাকবে।

শান্তিপূর্ণ উপায়ে ইয়েমেন সংকট সমাধানে শান্তিচুক্তিকে গুরুত্বপূর্ণ পদক্ষেপ বলে অভিহিত করেছেন জাতিসংঘের বিশেষ দূত মার্টিন গ্রিফিথস। উচ্ছ্বাস প্রকাশ করেছেন দক্ষিণাঞ্চলের বিদ্রোহী ও স্থানীয়রা।

তারা বলছেন, রিয়াদ চুক্তিকে আমরা স্বাগত জানাই। সংকট সমাধানের এটাই একমাত্র উপায়।

স্থানীয়রা বলছে, শান্তিচুক্তির মাধ্যমে সংঘাত বন্ধ হবে, নাগরিক অধিকার বাস্তবায়ন হবে, বেকারত্ব ঘুচবে, দক্ষিণাঞ্চলের মানুষের স্বপ্নপূরণ হবে-এটাই আমাদের চাওয়া।

শান্তিচুক্তি অনুযায়ী সমান অংশীদারীত্বে ক্ষমতা পরিচালনা করবে হাদি সরকার এবং দক্ষিণাঞ্চলের বিচ্ছিন্নতাবাদীরা। সংঘাত নিরসনে দ্রুত শান্তিচুক্তি বাস্তবায়নের ওপর গুরুত্বারোপ করেছেন বিশেষজ্ঞরা।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা