kalerkantho

রবিবার। ১৭ নভেম্বর ২০১৯। ২ অগ্রহায়ণ ১৪২৬। ১৯ রবিউল আউয়াল ১৪৪১     

অর্থনীতি ছেড়ে রাজনীতির ঝান্ডা ধরুন, নোবেলজয়ীকে বিজেপি নেতা

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

২০ অক্টোবর, ২০১৯ ২২:২০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



অর্থনীতি ছেড়ে রাজনীতির ঝান্ডা ধরুন, নোবেলজয়ীকে বিজেপি নেতা

নোবেলজয়ী বাঙালি অর্থনীতিবিদ অভিজিৎ বন্দ্যোপাধ্যায় অর্থনীতি ছেড়ে রাজনীতির ঝান্ডা ধরার পরামর্শ দিলেন বিজেপির সাবেক রাজ্য সভাপতি রাহুল সিনহা। অভিজিতের নোবেল জয়ে গর্বিত হলেও রাজনীতি করাতে আপত্তি রয়েছে রাহুল সিনহার। 

তার মতে, অর্থনীতিবিদকে শুধু অর্থনীতি নিয়েই চিন্তা করা উচিত। রাজনীতি তার বিষয় নয়, আর যদি সেটা হয়, তাহলে কোনো রাজনৈতিক দলের ঝান্ডা ধরা উচিত।

রাহুল সিনহার এই মন্তব্যে আবারো বিতর্ক শুরু হয়েছে। এর আগে নোবেলজয়ী অভিজিৎ বিনায়ক বন্দ্যোপাধ্যায়ের সমালোচনা করতে গিয়ে মাত্রা ছাড়ান রাজ্য বিজেপির শীর্ষ নেতা। অভিজিৎকে তোপ দাগতে গিয়ে ব‌্যক্তিগত আক্রমণ করে বসেন তিনি। 

বলেন, যাদের দ্বিতীয় স্ত্রী বিদেশি, মূলত তারাই নোবেল পেয়ে যাচ্ছেন। নোবেল পাওয়ার জন্য এটা কোনো ডিগ্রি কিনা জানি না। পীযূষ গোয়েল ঠিক কথাই বলেছেন। কারণ অভিজিৎবাবুরা দেশের অর্থনীতিকে বামপন্থার নীতিতে চালাতে চাইছেন। কিন্তু এ দেশে বামপন্থাই অচল হয়ে গিয়েছে।

এর আগে অমর্ত‌্য সেনের ক্ষেত্রেও এই ধরনের মন্তব‌্য করা হয়েছিল। আজ রবিবার রাহুলের মন্তব্য, প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে দেখা করতেই পারেন নোবেলজয়ী। দেখা করাটাই স্বাভাবিক। কিন্তু নোবেল পাওয়ার আগে এবং পরে যেভাবে অভিজিৎ রাজনীতি করছেন তা অনুচিত। অর্থনীতিবিদ শুধু অর্থনীতি নিয়েই চিন্তা করবেন। কিন্তু তিনি সেটা ছেড়ে যদি রাজনীতি করেন, কোনো দলকে ছোট বা আঘাত করেন, তবে তা মেনে নেওয়া যায় না। 

বিজেপির এই নেতার বক্তব্য, প্রধানমন্ত্রীকেও আঘাত করতে ছাড়েন না তিনি। সারা দেশের মানুষ তার চিন্তাকে বরখাস্ত করেছে। ছুঁড়ে ফেলে দিয়েছে। তার ভাবনার কোনো মূল্য নেই তা প্রমাণিত।

এদিকে বিদেশিনী স্ত্রী বিতর্ক নিয়ে অনুতপ্ত নন বলে তিনি জানান, যা ঘটনা তাই বলেছি। এই মন্তব্য প্রত্যাহার করছি না।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা