kalerkantho

বুধবার । ২০ নভেম্বর ২০১৯। ৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৬। ২২ রবিউল আউয়াল ১৪৪১     

চিলিতে বিক্ষোভ-দাঙ্গা চলছেই; নিহত ৩

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

২০ অক্টোবর, ২০১৯ ১৪:৩৪ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



চিলিতে বিক্ষোভ-দাঙ্গা চলছেই; নিহত ৩

চিলিতে বিক্ষোভকারীরা বিভিন্নস্থানে সহিংস বিক্ষোভ করেছেন

চিলিতে জন বিক্ষোভ ও সংঘর্ষের ঘটনা অব্যাহত রয়েছে। সান্তিয়াগোতে একটি সুপার মার্কেটের ভেতরে গুলিতে নিহত হয়েছেন অন্তত তিনজন। এদিকে জরুরি অবস্থা ঘোষণার পাশাপাশি সান্তিয়াগোতে কারফিউ জারি করেছে প্রশাসন। 

জানা গেছে, সান্তিয়াগোতে গণবিক্ষোভের দ্বিতীয় রাতে ওই হতাহতের ঘটনা ঘটেছে। এতে ঘটনাস্থলেই নিহত হন দুজন। হাসপাতালে নেয়ার পর মারা গেছেন একজন।

শনিবার বিক্ষোভকারীরা বিভিন্নস্থানে সহিংস বিক্ষোভ করেন। ব্যারিকেড সৃষ্টির পাশাপাশি বেশ কিছু বাসে আগুন ধরিয়ে দেন তারা। জবাবে পুলিশ কাঁদানে গ্যাস ছোড়ে ও জলকামান থেকে গরম পানি ছিটায়। শহরের কেন্দ্রীয় অঞ্চলে সংঘর্ষ বেশি হয়। এসব ঘটনায় অন্তত ৩০০ জনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। আহত হয়েছে আরো ১৫৬ জন।

চিলিতে মেট্রোর ভাড়া বৃদ্ধির প্রতিবাদে প্রেসিডেন্ট সেবাস্তিয়ান পিনেরার বিরুদ্ধে বিক্ষোভের সূচনা হয়। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণের বাইরে চলে যাওয়ায় তিনি জরুরি অবস্থা জারি করেন। রাতে কারফিউ দেন। দেশটির বিভিন্ন স্থানে মোতায়েন করা হয়েছে সেনাবাহিনী ও ট্যাঙ্ক। এক পর্যায়ে মেট্রোর ভাড়া বৃদ্ধি স্থগিতের ঘোষণা দিয়েছেন প্রেসিডেন্ট। কিন্তু এতেও বিক্ষোভ দমছে না।

লাতিন আমেরিকার সবচেয়ে স্থিতিশীল দেশগুলোর একটি চিলি। কিন্তু সাম্প্রতিক সময়ে সেখানে জীবনধারণের ব্যয় বেড়ে গেছে। এতে জনসাধারণের মধ্যে অসন্তোষ ছড়িয়ে পড়েছে। সেই অসন্তোষ যোগ হয়েছে এই বিক্ষোভকারীদের সঙ্গে। চিলিতে কয়েক দশকের মধ্যে এমন বিক্ষোভ হয়নি। এতে বিভক্ত হয়ে পড়েছে দেশটি।

প্রসঙ্গত, ১৯৯০ সালের পর এই প্রথম সান্তিয়াগোর বিভিন্নস্থানে মোতায়েন করা হয়েছে শত শত সেনা সদস্যকে। ১৯৯০ সালে স্বৈরশাসক অগাস্টো পিনোচেটের কাছ থেকে চিলিতে গণতন্ত্র ফিরে আসে। 

সূত্র : টিআরটি নিউজ 

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা