kalerkantho

শুক্রবার । ১৫ নভেম্বর ২০১৯। ৩০ কার্তিক ১৪২৬। ১৭ রবিউল আউয়াল ১৪৪১     

ঘোড়ায় চড়ে পাহাড় চূড়ায় ‘মিসাইল ম্যান’, এবার চোখ মহাকাশে?

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১৬ অক্টোবর, ২০১৯ ১৭:৫৯ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



ঘোড়ায় চড়ে পাহাড় চূড়ায় ‘মিসাইল ম্যান’, এবার চোখ মহাকাশে?

উত্তর কোরিয়ার স্বৈরশাসক এবার পারমাণবিক অস্ত্রের জটিল পরীক্ষা-নিরীক্ষা ছেড়ে পাহাড় জয়ে বেরিয়ে পড়লেন। জয়ও করলেন। তবে সেখানেও তিনি ব্যতিক্রমী। ‘মিসাইলপ্রেমী’ এই স্বৈরশাসক ঘোড়ায় চেপে দেশের সর্বোচ্চ পাহাড়ে উঠেছেন। দেশটির রাষ্ট্রীয় বার্তা সংস্থা কেসিএনএয়ের বরাত দিয়ে এই তথ্য জানিয়েছে রয়টার্স।

আজ বুধবার দেশটির রাষ্ট্রীয় বার্তা সংস্থা কয়েকটি ছবি প্রকাশ করে। আর সেই ছবিতে দেখা যায়, উত্তর কোরিয়ার সবচেয়ে উঁচু পর্বতশৃঙ্গ মাউন্ট পেকতুরের বরফে ঢাকা পাহাড়ি রাস্তা ধরে সাদা একটি ঘোড়া চড়ে ছুটে যাচ্ছেন কিম। দেখা যায়, দ্রুতগতিতে ঘোড়ায় ছোটার সময়ও কিমের মুখে প্রাণবন্ত হাসি ছিলো।

আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যমগুলো বলেছে, এই অপারেশনের মাধ্যমে কিম কী বার্তা দিলেন তা এখনো স্পষ্ট। তবে গুরুত্বপূর্ণ কোনো কাজ করা আগে তিনি ওই ‘পবিত্র’ পর্বতে ভ্রমণ করেন। বিশ্লেষকরা বলছেন, আন্তর্জাতিক নিষেধাজ্ঞার বিরুদ্ধে দাঁড়িয়ে রয়েছে উত্তর কোরিয়া। এতো এতো নিষেধাজ্ঞা থাকা সত্বেও পারমাণবিক অস্ত্র এবং ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্র অস্ত্রের পরীক্ষা চালিয়ে যাচ্ছে উত্তর কোরিয়া। ক্যালিফোর্নিয়ায় মিডলবারি ইনস্টিটিউট অব ইন্টারন্যাশনাল স্টাডিজের উত্তর কোরিয়ার বিশেষজ্ঞ জোশুয়া পোল্যাক বলেছেন, এটি একটি বিদ্রোহের প্রতীকী বিবৃতি।

এদিকে ২০১৭ সালের শেষের দিকে কিম উত্তর কোরিয়ার সবচেয়ে উঁচু পর্বতশৃঙ্গ মাউন্ট পেকতুর ভ্রমণ করেছিলেন। তার কয়েকদিন আগেই দেশটির সবচেয়ে বড় আন্তঃমহাদেশীয় ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্রটির পরীক্ষা চালানো হয়। পর্বতশৃঙ্গ ভ্রমণের কয়েক সপ্তাহ পরই তিনি নতুন বছরে একটি ভাষণ দিয়েছিলেন। এই ভাষণেই তিনি দক্ষিণ কোরিয়ার সঙ্গে সম্পর্কের দ্বার উন্মুক্ত করেছিলেন।

বেশ কয়েকজন বিশেষজ্ঞ জানান, এর মাধ্যমে দেশটির অর্থনীতিকে ঘিরেই হয়তো কোনো বার্তা দিয়ে থাকবে। তাদের সন্দেহ, উত্তর কোরিয়া খুব শিগগিরই মহাকাশে পাড়ি দিয়ে ইতিহাস গড়তে চলছেন। বলা হচ্ছে, এভাবে দেশটি তার অর্থনৈতিক ও প্রযুক্তিগত শক্তি প্রদর্শন করতে পারবে অতি সহজে।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা