kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ২১ নভেম্বর ২০১৯। ৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৬। ২৩ রবিউল আউয়াল ১৪৪১     

ছেলের নোবেল জয়ে মা নির্মলাদেবী

'আমার নয় বাংলার ছেলে অভিজিৎ, সকলের সন্তান সে'

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১৫ অক্টোবর, ২০১৯ ১১:৫৫ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



'আমার নয় বাংলার ছেলে অভিজিৎ, সকলের সন্তান সে'

নোবেল জয়ী অভিজিত বন্দোপাধ্যায়ের মা নির্মলা দেবী

ছেলে এখন সূদূরে। এদিকে, কলকাতায় দুপুরবেলা আয়েস করে বই পড়তে পড়তে হঠাত্‍ই ফোন আসে। আর ফোনার ওপার থেকে নির্মলা বন্দ্যোপাধ্যায়ের কাছে এসেছে অপ্রত্যাশিত সেই সুখবর। ছেলে অভিজিৎ বন্দ্যোপাধ্যায়ের অর্থনীতিতে নোবেল জয়ের খবর বালিগঞ্জের বাড়িতে বসে পেয়েছেন মা নির্মলা। আনন্দ, উচ্ছ্বাস, অকস্মাত্‍ সুখবর ভাগ করে নিতে না নিতেই দরজায় কলিং বেল বেজে ওঠে! নির্মলা দেবীর বাড়ির দরজার ওপাশে তখন এসে পৌঁছেছে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের শুভেচ্ছাবার্তা। এ তথ্য জানায় কলকাতা পুলিশ। এরপরই সাংবাদিকরা ঘিরে ধরেন নোবেলজয়ীর মা নির্মলা দেবীকে। উঠে আসে একাধিক প্রসঙ্গ।

ছেলের নোবেল জয় নিয়ে সাংবাদিকদের কাছে প্রথম প্রতিক্রিয়াতেই নির্মলা দেবী জানান, 'আমার নয়, বাংলার ছেলে অভিজিৎ...সকলের সন্তান সে'। এর মধ্যেই তিনি নিজের প্রতিক্রিয়া দিতে গিয়ে জানান, প্রায়ই মা-ছেলের কথা হয় ফোনে। তবে 'কী খেয়েছ?' বা 'কেমন আছ?' প্রশ্ন বড়ই বিরক্তির হয়ে ওঠে ছেলের কাছে। কিন্তু গবেষণার বিষয় বা সাধারণ বিষয় নিয়ে কথা বলতে বেশ ভালোবাসেন অভিজিত্‍। মা ও ছেলের মধ্যে প্রায়ই আড্ডা হয় সাম্প্রতিক আর্থিক পরিস্থিতি নিয়ে। নির্মলা দেবী প্রায়ই ছেলের কাছে জানতে চান বর্তমানে ভারতের কর ব্যবস্থা নিয়ে। যা নিয়ে সাবলীলভাবে সহজ পন্থায় মাকে বুঝিয়ে দেন ছেলে অভিজিত্‍।

'পুওর ইকোনমিক্স' এর রচয়িতা অভিজিৎ অত্যন্ত সহজভাবে অর্থনীতির নানান কঠিন বিষয় বুঝিয়ে দিতে পারেন বলেও জানান নির্মলা বন্দ্যোপাধ্যায়। ছেলে সম্পর্কে বলতে গিয়ে বার বার তিনি বলেন সাউথ পয়েন্টের ছাত্র অভিজিৎ সংখ্যাতত্ত্ব নিয়ে পড়তে গিয়ে শেষে অর্থনীতির ভালোবাসায় পড়ে যান অভিজিৎ।

সূত্র: ওয়ান ইন্ডিয়া 

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা