kalerkantho

সোমবার । ১৮ নভেম্বর ২০১৯। ৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৬। ২০ রবিউল আউয়াল ১৪৪১     

মোদীর হাতে ওটা কী? নিজেই জানালেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১৩ অক্টোবর, ২০১৯ ১৮:৪৯ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



মোদীর হাতে ওটা কী? নিজেই জানালেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী

ভোরবেলা দক্ষিণ ভারতের তামিলনাড়ুর মমল্লপুরম বিচে ভারতের প্রধানমন্ত্রী। পরনে কালো টি শার্ট এবং ট্রাউজার্স। হাতে একটি রুটি বেলার কাজে ব্যবহৃত বেলনের মতো জিনিস। তা সামলে নিয়েই সৈকতে পড়ে থাকা প্লাস্টিকের ব্যাগ এবং বোতল তুলে তিনি ভরছেন ব্যাগে। মোদীর সৈকত-সাফাইয়ের মিনিট তিনেকের এই ভিডিয়ো সোশাল মিডিয়ায় দ্রুত ভাইরাল হয়ে যায়।

কিন্তু, সৈকতে প্লাস্টিক সাফাইয়ের সময় প্রধানমন্ত্রীর হাতের জিনিসটি নিয়ে কৌতূহলী হয়ে ওঠেন নেটিজেনরা। ওটা কী? চব্বিশ ঘণ্টার মধ্যেই নেটিজেনদের সেই প্রশ্নের উত্তর নিজেই দিয়েছেন মোদী। রবিবার এ নিয়ে টুইট করেন তিনি। লেখেন, ‘গত কাল আপনাদের অনেকেই জিজ্ঞাসা করছেন মমল্লপুরম বিচে প্লগিংয়ের সময় আমার হাতে কী ছিল? এটা একটা আকুপ্রেসার রোলার যা আমি প্রায়শই ব্যবহার করি। আমার এটা খুব কার্যকরী মনে হয়েছে।’ একই সঙ্গে আকুপ্রেসার রোলারের ছবিও পোস্ট করেছেন মোদী। প্রধানমন্ত্রীর সচিত্র উত্তর পেয়ে ভার্চুয়াল জগতেও কৌতূহলের অবসান ঘটেছে।

‘প্লগিং’ হল ‘জগিং’ এবং ‘পিকিং আপ লিটারস’, অর্থাৎ জগিং করার সময়ে পথে পড়ে থাকা নোংরা-আবর্জনা সাফ। অনেকের মতে, আবর্জনা সাফের সঙ্গে সঙ্গে শারীরিক সুস্থতার বার্তাও দিতে চেয়েছেন প্রধানমন্ত্রী। তাই আকুপ্রেসার রোলার হাতে নিয়েই শনিবার মমল্লপুরম বিচে প্লাস্টিক সাফাই অভিযানে নেমে পড়েন তিনি। ২০১৪ সালে স্বচ্ছ ভারত অভিযান শুরুর সময় নিজের হাতেই ঝাড়ু তুলে নিয়ে সকলকে চমকে দিয়েছিলেন মোদী। শনিবারও সেই টানটান চমক তিনি পুরোদমে বজায় রেখে দিলেন।

আকুপ্রেসার রোলার হল এমন একটি জিনিস যা, নার্ভগুলিকে সচল রাখে ও রক্ত সঞ্চালন বাড়ায়। হাত ও পায়ের হাজার হাজার নার্ভকে সতেজ রাখে এগুলি। এটি মানসিক চাপ থেকে মুক্তি দেয় ও শরীর ও মন ভালো রাখে।’

একটি পরিসংখ্যান জানাচ্ছে, ‘স্বচ্ছ ভারত’ অভিযানের আওতায় ২০১৯ সালের মার্চ মাস অবধি ভারতের ৯৩ % প্রত্যন্ত এলাকায় টয়লেটের ব্যবস্থা হয়েছে। যে কারণে মোট ৯ কোটি টয়লেট বানানো হয়েছে বলে জানানো হয়েছে।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা