kalerkantho

মঙ্গলবার । ২৮ জানুয়ারি ২০২০। ১৪ মাঘ ১৪২৬। ২ জমাদিউস সানি ১৪৪১     

চীনা সেনাবাহিনীর ছবি শেয়ার করায় আটক তাইওয়ানের নাগরিক

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১২ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ১৮:৪৬ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



চীনা সেনাবাহিনীর ছবি শেয়ার করায় আটক তাইওয়ানের নাগরিক

রাষ্ট্রীয় নিরাপত্তা হুমকির মধ্যে পড়ে এমন কাজ করার অভিযোগে লি মেঙ চু নামের তাইওয়ানের এক নাগরিককে আটক করেছে চীনা আইন শৃঙ্খলা বাহিনী। চীনের পক্ষ থেকে বলা হয়, তিনি হংকং সীমান্তে চীনা সেনাবাহিনীর ছবি তুলে তা অন্যদের কাছে পাঠান।

চীনের তাইওয়ান বিষয়ক এক মুখপাত্র জানান, রাষ্ট্রীয় নিরাপত্তা হুমকির মধ্যে পড়ে এমন অভিযোগে তাকে আটক করা হয়। তার বিরুদ্ধে তদন্ত করা হচ্ছে। তবে তিনি বিস্তারিত কোনো তথ্য জানাননি। 

গার্ডিয়ানের এক প্রতিবেদনে জানা যায়, দক্ষিণ তাইওয়ানের ফিশিং সম্প্রদায়ের স্বেচ্ছাসেবীদের সংগঠক হিসেবে কাজ করতেন তিনি। চেন ইয়ালিন নামের তাইওয়ানের এক মেয়র জানান, লি তাকে একটি ছবি পাঠিয়েছিলেন যাতে দেখা যায়, আধা সামরিক বাহিনী কোনো একটি জায়গায় সরঞ্জাম নিয়ে জড়ো হয়েছিল। ওই ছবি পাঠানোর পর থেকেই তিনি লি'র সঙ্গে যোগাযোগ করতে পারেননি।

চেন ইয়ালিন জানান, তিনি সর্বশেষ ২০ আগস্ট লির সঙ্গে যোগাযোগ করেন। ওই দিন লি বলেন, পিপলস লিবারেশন আর্মি সীমান্তের পাশে জড়ো হয়েছিল, পরিস্থিতি উত্তেজনাকর বলে মনে হয়েছে। এরপর থেকেই তাকে আর খোঁজে পাওয়া যায়নি।

সম্প্রতি হংকংয়ে সরকার বিরোধী ও গণতন্ত্রপন্থিরদে বিক্ষোভ হয় এবং দিন দিনই তা সহিংস রূপ নেয়। হংকং বিশ্বের সবচেয়ে নিরাপদ নগরী হিসাবে খ্যাতি কুড়ালেও বর্তমানে সেখানে পুলিশ-বিক্ষোভকারী সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। সেই প্রতিবাদকারীদের ওপর মুখোশধারীদের হামলার ঘটনায় বিশৃঙ্খল পরিস্থিতি বিজার করে। এমন পরিস্থিতে সীমন্ত এলাকা থেকে লি খবর পাঠায় যে, পিপলস লিবারেশন আর্মি সীমান্তের পাশে জড়ো হয়েছিল। তারা হংকংয়ে বিক্ষোভের মধ্যে আক্রমণ চালাতে পারে। 

লি মেঙ-চুই প্রথম নয়। এর আগেও রাষ্ট্রীয় নিরাপত্তা হুমকির ফেলার অভিযোগে বহু ব্যক্তিকে আটক করে চীন। প্রায়ই সচেতন নাগরিকদের অচেনায় জায়গায় আটকে রাখে চীন। আটকে রাখার পর পরিবারের এবং আইনজীবীদের সঙ্গে সাক্ষাৎ করতে দেওয়া হয় না।  ২০১৭ সালের মার্চ মাসে আটক করা হয় লি মিং চি নামের এক মানবাধিকার কর্মীকে। পরে তাকে পাঁচ বছরের কারাদণ্ড দেয় দেশটির আদালত।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা