kalerkantho

শনিবার । ১৪ ডিসেম্বর ২০১৯। ২৯ অগ্রহায়ণ ১৪২৬। ১৬ রবিউস সানি               

অস্ত্র ঠেকিয়ে পুরোহিতের স্ত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগ

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১২ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ০১:৩৯ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



অস্ত্র ঠেকিয়ে পুরোহিতের স্ত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগ

প্রাণে মেরে ফেলার হুমকি দিয়ে গলায় ছুরি ঠেকিয়ে পুরোহিতের স্ত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে প্রতিবেশী এক যুবকের বিরুদ্ধে। ঘটনাটি ঘটেছে ভারতের পূর্ব মেদিনীপুরের খেজুরি এলাকায়। 

অভিযোগ উঠেছে, পুরো বিষয়টি জানিয়ে খেজুরি থানার দ্বারস্থ হলে মহররমের কারণে নির্যাতিতাকে ফিরিয়ে দেয় পুলিশ। বাধ্য হয়ে পরে পুলিশ সুপারের দ্বারস্থ হন নির্যাতিতা। এরই মধ্যে শুরু হয়েছে তদন্ত।

জানা গেছে, খেজুরির মোহটি এলাকায় স্বামীর সঙ্গে থাকেন নির্যাতিতা ওই নারী। ওই নারীর অভিযোগ, মঙ্গলবার বাড়ির সামনের পুকুরে স্নান করছিলেন তিনি। ওই সময় ঝোঁপের আড়াল থেকে সুদীপ্ত নামে প্রতিবেশী এক যুবক উঁকি মারছিলেন। এরপর স্নান সেরে ঘরে ফিরে পোশাক পরিবর্তন করছিলেন তিনি। 

তিনি আরো অভিযোগ করেন, সেই সময়ও ঘরের জানালা থেকে উঁকি মারছিলেন সুদীপ্ত। বিষয়টি নজরে পড়তেই প্রতিবাদ করেন পুরোহিতের স্ত্রী। এরপরই ওই যুবক তাকে কুপ্রস্তাব দেন। তাতে রাজি না হওয়ায় তার ওপর চড়াও হয় যুবক। হাত-পা বেঁধে গলায় ছুরি ধরে ওই নারীকে ধর্ষণ করেন অভিযুক্ত। কাউকে জানালে প্রাণনাশের হুমকিও দেন বলে অভিযোগ উঠেছে।

এরপর স্বামী বাড়ি ফিরলে তাকে পুরো বিষয়টি জানান নির্যাতিতা। ঘটনাচক্রে গ্রামের কয়েকজনও পুরো বিষয়টি জানতে পারেন। তাদের পরামর্শেই স্বামীর সঙ্গে খেজুরি থানায় অভিযোগ করতে যান নির্যাতিতা। 

অভিযোগ উঠেছে, ঘটনাটি শোনার পরও মহররম বলে অভিযোগ নিতে অস্বীকার করে খেজুরি থানার পুলিশ। একাধিকবার অনুরোধ করার পরেও কোনো লাভ হয়নি। এরপর বাধ্য হয়ে পুলিশ সুপারের কাছে অভিযোগ দায়ের করেন তারা। 

তারপর শুরু হয় তদন্ত। তবে পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, ঘটনার পর থেকেই পলাতক রয়েছেন অভিযুক্ত যুবক। অভিযুক্তের শাস্তির দাবিতে সরব স্থানীয়রাও। ওই ঘটনায় জেলা সনাতন ব্রাহ্মণ ট্রাস্টের পক্ষ থেকেও তোড়জোড় শুরু হয়েছে। ঘটনার তীব্র নিন্দা করেছেন ট্রাস্টের জেলা সম্পাদক। 

তিনি বলেন, এই ঘটনার তীব্র নিন্দা করছি। অভিযুক্তকে শাস্তি দিতেই হবে।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা