kalerkantho

জঙ্গিদের ল্যাপটপে সেনা কর্মকর্তাদের নাম; টার্গেট কাশ্মীর!

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১০ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ১৬:৫৭ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



জঙ্গিদের ল্যাপটপে সেনা কর্মকর্তাদের নাম; টার্গেট কাশ্মীর!

পশ্চিমবঙ্গ রাজ্যের বর্ধমান এবং উত্তর দিনাজপুর থেকে তিন জঙ্গি গ্রেপ্তার

ভারতের পশ্চিমবঙ্গ রাজ্যের বর্ধমান এবং উত্তর দিনাজপুর থেকে তিন জঙ্গিকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। গ্রেপ্তারকৃত জঙ্গিদের পেনড্রাইভ এবং ল্যাপটপ ঘেঁটে সেনা কর্মকর্তাদের নাম পেয়েছেন গোয়েন্দারা।  তারা গোপনে কষছিল বড় ধরনের হামলার ছক। কলকাতা পুলিশের স্পেশাল টাস্ক ফোর্সের তদন্তে এ তথ্য মিলেছে। 

জানা গেছে, কোন আর্মি অফিসার কোন সেক্টরে কর্মরত, সীমান্ত রক্ষা করতে গিয়ে কোন জওয়ান নিহত হয়েছেন, সব তথ্যই রয়েছে জঙ্গিদের কাছে। এমনকি তাদের কাছে রয়েছে, কাশ্মীরে নিহত জঙ্গিদের নাম পরিচয়। একটানা জেরা করা হয়েছে তাদের। কিন্তু জামাত-উল-মুজাহিদিন ইন্ডিয়ার শীর্ষ নেতাদের কাছে প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত আবুল কাশেম, আবদুল বারি, নিজামুদ্দিন খানকে জেরা করে পাওয়া গেছে খুবই কম তথ্য। 

২২ বছর বয়সী কাশেম বর্ধমানের মঙ্গলকোটের দুরমুটের বাসিন্দা। কলকাতার ইস্ট ক্যানাল রোডের গজনবি ব্রিজের কাছে প্রথমে আটক করা হয় তাকে। তার কাছ থেকে উদ্ধার হয় বেশ কিছু লিফলেট, জঙ্গি কার্যকলাপের বই। 

আদালতে পুলিশ জানায়, কাশেমের কাছে পাওয়া গেছে পেনড্রাইভ‌। উত্তর দিনাজপুরের আবদুল বারি এবং নিজামউদ্দিনের বাড়ি থেকে উদ্ধার হয় দুটি ল্যাপটপ, একটি স্মার্টফোন, ডিটোনেটর, ক্যাপাসিটর, বোমা বানানোর স্প্লিন্টার, ওয়াচ মেশিন, গ্লুস্টিক, হ্যাক স ব্লেড, ওয়ার কাটার। ল্যাপটপ এবং মোবাইল দেখে চোখ কপালে উঠেছে গোয়েন্দাদের। 

বিশ্বস্ত সূত্রে জানা গেছে, ওই জঙ্গিদের ল্যাপটপ, মোবাইল ফোন, পেনড্রাইভে পাওয়া গেছে বহু তথ্য। প্রাথমিকভাবে গোয়েন্দারা ভেবেছিলেন সেখানে পাওয়া যাবে জামাত মডিউলের তথ্য। সেসব পাওয়া গেছে কি না তা অবশ্য গোপন রাখতে চাইছে কলকাতা পুলিশের স্পেশাল টাস্ক ফোর্স। তবে জঙ্গিদের ল্যাপটপে পাওয়া গেছে আর্মি, বর্ডার সিকিউরিটি ফোর্স, সিআরপিএফ-এর নানা তথ্য। পাশাপাশি কাশ্মীরের জঙ্গিদের তথ্যও পেয়েছে তদন্তকারীরা। এতে রয়েছে জওয়ান এবং জঙ্গিদের মৃত্যু তালিকাও‌। গোয়েন্দাদের সন্দেহ জামাত-উল-মুজাহিদিন ইন্ডিয়া অথবা জামাত-উল-মুজাহিদিন হিন্দের টার্গেটে রয়েছে কাশ্মীর। গ্রেপ্তারকৃতদের জেরা করে আরও অনেক তথ্য পাওয়া যাবে বলে মনে করছে কলকাতা পুলিশের স্পেশাল টাস্ক ফোর্স। 

সূত্র : ইটিভি ভারত 

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা