kalerkantho

শুক্রবার । ২২ নভেম্বর ২০১৯। ৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৬। ২৪ রবিউল আউয়াল ১৪৪১     

বাসায় ফিরলেন পশ্চিমবঙ্গের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী বুদ্ধদেব ভট্টাচার্য

অনিতা চৌধুরী, কলকাতা প্রতিনিধি    

৯ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ১৭:২১ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



বাসায় ফিরলেন পশ্চিমবঙ্গের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী বুদ্ধদেব ভট্টাচার্য

ভালো আছেন পশ্চিমবঙ্গের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী বুদ্ধদেব ভট্টাচার্য। চিকিৎসায় সাড়া মিলছে। তাঁর সুবিধা-অসুবিধার কথা নিজেই চিকিৎসকদের বলছেন প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী। তাঁর শারীরিক অবস্থা এখন আগের থেকে অনেক স্থিতিশীল। সোমবার বিকেলে হাসপাতালের অ্যাম্বুল্যান্সে করে নিজের বাড়িতে নিয়ে যাওয়া হয়েছে বলে জানা গেছে।

তিন দিনের মাথায় হাসপাতাল থেকে ছাড়া পেয়ে বাড়ি ফিরলেন পশ্চিমবঙ্গের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী বুদ্ধদেব ভট্টাচার্য। বিকেল তিনটার দিকে তাঁকে ছেড়ে দেওয়া হয় হাসপাতাল থেকে। তবে স্ট্রেচারে শুয়েই তাঁকে হাসপাতাল থেকে বের হতে দেখা যায়। আলিপুরের বেসরকারি হাসপাতাল থেকে সোজা বুদ্ধদেব ভট্টাচার্য চলে যান পাম অ্যাভিনিউয়ে নিজের বাড়িতে। সেখানেই তিনি চিকিৎসা করাতে চান বলে ঘনিষ্ঠ মহলে ইচ্ছা প্রকাশ করেছেন।

দক্ষিণ কলকাতার একটি বেসরকারি হাসপাতালে শুক্রবার রাত থেকে ভর্তি ছিলেন প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী। তাঁর চিকিৎসার জন্য গঠিত মেডিক্যাল বোর্ডের তরফে এ দিন জানানো হয়, নিউমোনাইটিসের জেরে যে অবস্থা হয়েছিল, তার কিছুটা উন্নতি লক্ষ্য করা গিয়েছে পরীক্ষা-নিরীক্ষায়। তাঁর রক্তে হিমোগ্লোবিনের মাত্রা বেড়েছে, শরীরে কমেছে কার্বন ডাই অক্সাইডের পরিমাণ। তবে বেশ কয়েক ঘণ্টা করে বাইপ্যাপ দিতে হচ্ছে তাঁকে। বাইরে থেকে অক্সিজেন দেওয়া এখন চালিয়ে যেতে হবে বলেই জানাচ্ছেন চিকিৎসকেরা। মেডিক্যাল বোর্ডের পর্যবেক্ষণের সময়ে এ দিন ডেকে নেওয়া হয়েছিল প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রীর পরিবারকেও।

চিকিৎসকরা জানিয়েছেন, তাঁর নিউমোনিয়ার সংক্রমণ অনেকটাই নিয়ন্ত্রণে। তবে এখনও তাঁকে দেওয়া হচ্ছে বাইপ্যাপ। অ্যান্টিবায়োটিকও চলবে বলে জানিয়েছেন চিকিৎসকরা। নিয়ন্ত্রণে রয়েছে রক্তচাপও। আপাতত সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে, চিকিৎসক ও নার্স সহযোগে তাঁকে বাড়িতে পাঠানো হয়েছে। চিকিৎসক কৌশিক চক্রবতী ও সোমনাথ মাইতির তত্ত্বাবধানে তাঁর চিকিৎসা চলবে বলে জানা গেছে।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা