kalerkantho

সোমবার । ১৮ নভেম্বর ২০১৯। ৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৬। ২০ রবিউল আউয়াল ১৪৪১     

বিক্রম অক্ষত রয়েছে! তবে...

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

৯ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ১৬:৪২ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



বিক্রম অক্ষত রয়েছে! তবে...

ল্যান্ডার বিক্রম

গতকাল রবিবার চন্দ্রযান ২-এর ল্যান্ডার বিক্রমের সন্ধান মিলেছে। অরবিটারের পাঠানো ছবি দেখা মনে করা হচ্ছে বিক্রম অক্ষত রয়েছে। তবে এটি একটু কাত হয়ে পড়েছে। ল্যান্ডার বিক্রমের সঙ্গে এখনও পর্যন্ত কোনোভাবেই সরাসরি যোগাযোগ স্থাপন করা যায় নি। ভারতের মহাকাশ সংস্থা-ইসরো কর্তৃপক্ষ এ তথ্য জানিয়েছে। 

ইসরোর কর্তৃপক্ষ বলছে, অরবিটারের পাঠানো ছবি থেকে জানা গেছে, চন্দ্রযান ২-এর ল্যান্ডার বিক্রম প্রায় ঠিকঠাকই নেমে গিয়েছিল। সামান্য এদিক-ওদিক হওয়ায় সফল সফ্ট ল্যান্ডিং হয়নি তার। কিন্তু হার্ড ল্যান্ডিংয়ের কারণে সংযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে গেছে। তবে ল্যান্ডার বিক্রম এখনও অক্ষত রয়েছে, ভেঙে যায়নি। তবে এটি একটু কাত হয়ে যাওয়া অবস্থায় রয়েছে। 

ইসরোর একটি সূত্র দাবি করেছে, চাঁদের পিঠে যেখানে নামার কথা ছিল বিক্রমের, সেখান থেকে মাত্র আধ কিলোমিটার দূরের শেষ অবস্থান চিহ্নিত করা গেছে বিক্রমের। বিক্রম কাত হয়ে পড়লেও, তার ভেতরে ঠিকঠাক অবস্থানে রয়েছে রোভার প্রজ্ঞানও। কাজও করছে স্বাভাবিকভাবে। অরবিটারের পাঠানো ছবি তা-ই বলছে। কিন্তু কোনোভাবেই সরাসরি যোগাযোগ স্থাপন করা যাচ্ছে না ল্যান্ডার বিক্রমের সঙ্গে।

অরবিটারের সঙ্গে যে ক্যামেরাটি পাঠানো হয়েছে, তাতে রয়েছে অত্যন্ত হাই রেজ্যুলিউশনের লেন্স। ফলে তার পাঠানো ছবিগুলি সারাবিশ্বের বিজ্ঞান মহলের কাছে অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ, এ কথা আগেই জানিয়েছিল ইসরো। তাই তার পাঠানো ছবি এবং তথ্যই এখন বিস্তারিতভাবে বিশ্লেষণ করা হচ্ছে।

শুক্রবার গভীররাতে চাঁদের পিঠে নামার সময়ে যখন বিক্রমের সঙ্গে ইসরোর যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে যায়, তখন বিজ্ঞানীরা আদৌ নিশ্চিত ছিলেন না, ল্যান্ডার বিক্রম অক্ষত আছে কি-না। আশঙ্কা করা হয়েছিল, কক্ষপথ ছেড়ে ছিটকে বেরিয়েও যেতে পারে ল্যান্ডার। সে সময় অনেকেই ভেঙে পড়েছিলেন, চন্দ্রযান-২ ব্যর্থ হয়েছে ভেবে। কিন্তু অরবিটার ছবি পাঠাতে থাকে।

রবিবার সকালে সেই অরবিটারের ছবিতে আচমকাই ধরা পড়ে বিক্রমের ছবি। সেখানে দেখা যায়, চাঁদে যেখানে নামার কথা ছিল বিক্রমের, সেখান থেকে ২ দশমিক ১ কিলোমিটার দূরে রয়েছে এটি। তবে ঠিক কী অবস্থায় আছে, তা বোঝা যায়নি গতকাল। কিন্তু সোমবার বিজ্ঞানীরা দাবি করলেন, অরবিটারের পাঠানো আরও নানারকম ছবি বিশ্লেষণ করে অবশেষে জানা গেছে, অক্ষত আছে বিক্রম, ভেঙে যায়নি। এবং চাঁদের সঙ্গে তার দূরত্বও মাত্র  অর্ধ কিলোমিটার।

ইসরো জানিয়েছে, এখন চেষ্টা একটাই, কীভাবে বিক্রমের সঙ্গে বিচ্ছিন্ন হয়ে যাওয়া যোগাযোগ ফের চালু করা যায়। সেটা সম্ভব হলেই অনেকটাই কেটে যাবে দুশ্চিন্তা, চন্দ্রযান পাঠানোর উদ্দেশ্য সফল হওয়ার সম্ভাবনা বাড়বে।

ইসরোর এক কর্মকর্তা বলেন, যদি ল্যান্ডার বিক্রমের সমস্ত অংশটা অক্ষত না  থাকে, তাহলে নতুন করে যোগাযোগ স্থাপন করা খুব কঠিন হবে। সুযোগ কমই আছে বলা যায়। সফ্ট ল্যান্ডিং ঠিকঠাক হলে বিক্রম অক্ষত থাকত। সেটা হয়নি বলেই দুশ্চিন্তা বেড়েছে। 

সূত্র : দ্য ওয়াল, জি-নিউজ 

 

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা