kalerkantho

মঙ্গলবার । ১২ নভেম্বর ২০১৯। ২৭ কার্তিক ১৪২৬। ১৪ রবিউল আউয়াল ১৪৪১     

৮ ঘণ্টায় ইরানকে ধ্বংস করতে সক্ষম সৌদি আরব!

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

৭ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ১৬:৪২ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



৮ ঘণ্টায় ইরানকে ধ্বংস করতে সক্ষম সৌদি আরব!

প্রতীকী ছবি

ইরানের সামরিক শক্তির চেয়ে অনেক এগিয়ে রয়েছে সৌদি আরব। যুদ্ধ শুরু হলে আট ঘণ্টার মধ্যে ইরানকে সম্পূর্ণভাবে ধ্বংস করে দিতে সক্ষম রিয়াদ। সৌদি প্রিন্স আব্দুল্লাহ বিন সুলতান বিন নাসের আস-সাউদ এমনটাই দাবি করেছেন। আরবি ভাষায় লেখা এক টুইটার পোস্টে সৌদি প্রিন্স এ দাবি করেন।

 সৌদি আরবের চ্যানেল-২৪-এ  ২০১৬ সালে একটি ভিডিও সম্প্রচারিত হয়। ওই ভিডিওর বরাত দিয়ে ওই কথা বলেছেন সৌদি প্রিন্স আব্দুল্লাহ বিন সুলতান বিন নাসের। 

ওই ভিডিওতে সৌদি আরবের এফ-১৫ জঙ্গিবিমান এবং ইরানের এফ-৪ ফ্যান্টম জঙ্গিবিমানের তুলনা করে সৌদি আরবের একজন বিশ্লেষক বলেছিলেন, ইরানের অস্ত্র ও সামরিক যন্ত্রপাতি অনেক পুরনো। সে তুলনায় সৌদি আরবের অস্ত্র এবং সামরিক সরঞ্জাম অনেক আধুনিক।

সৌদি প্রিন্স আব্দুল্লাহ বিন সুলতান বলেন, ইতিমধ্যে আরো দু'বছর চলে গেছে। এই সময়ের মধ্যে সৌদি আরব বিমান প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা কিনেছে। নৌ শক্তি, স্থল ও বিমানবাহিনীকে অত্যাধুনিক ক্ষেপণাস্ত্র দিয়ে সজ্জিত করেছে সৌদি আরব। 

সৌদি প্রিন্স বলেন, যা গোপন আছে তা হচ্ছে অনেক বড় কিছু। বিশ্বে এমন কোনো বাহিনী নেই যারা আমাদের ঐক্যের ধারে কাছে দাঁড়াতে পারে। আমাদের দৃঢ়তা আমাদের সতর্কতার জন্য আল্লাহকে ধন্যবাদ।

প্রসঙ্গত, সৌদি আরব ২০১৫ সালে  প্রতিবেশী দেশ ইয়েমেনের ওপর সামরিক আগ্রাসন চালায়। এরপর চার বছর পার হয়ে গেলেও সে যুদ্ধে বিজয় লাভ করা তো দূরের কথা যে সমস্ত লক্ষ্য নিয়ে যুদ্ধ শুরু করেছিল তার একটিও অর্জন করতে পারে নি সৌদি সরকার। এদিকে, নিউ ইয়র্ক টাইমস গত জুলাই মাসে এক প্রতিবেদনে বলেছে, ইয়েমেনে আটকে গেছে সৌদি আরব। ইয়েমেন নিয়ে যখন সৌদি আরবের এই অবস্থা তখন ইরান নিয়ে সৌদি প্রিন্স আব্দুল্লাহ বিন সুলতানের বক্তব্যকে নিতান্তই বাগাড়ম্বর বলে মনে করা হচ্ছে। 

সূত্র : পার্সটুডে

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা